অসুস্থ ছাত্রকে জঙ্গী ভেবে পুলিশ ডাকল শিক্ষক

অসুস্থ ছাত্রকে জঙ্গী ভেবে পুলিশ ডাকল শিক্ষক

বিশ্বে জঙ্গীরা কাঁটার মতো গিঁথে আছে,তাই সন্দেহজনক কাউকে দেখলে অনেকেই জঙ্গী মনো করেন,তবে এবার ঘটল এক অন্য ঘটনা,এক ছুদে পড়ুয়াকে জঙ্গী ভেবে পুলিশ ডাকল শিক্ষক,

টেক্সাসের পার্লল্যান্ডের সিজে হ্যারিস এলিমেন্টারি স্কুলের ঘটনা৷ ঠিক কি কারণে ওই শিক্ষক এক ছ’বছরের শিশুকে জঙ্গি বলে সন্দেহ করল? জানা গিয়েছে, ক্লাসের মধ্যে সে আল্লাহ এবং বুম শব্দ দুটি বারবার উচ্চারণ করতে থাকে৷ তাই শুনে ওই শিক্ষকের মনে সন্দেহ হয়৷ সঙ্গে সঙ্গে তিনি খবর দেন টেক্সাস পুলিশকে৷দুধের শিশুকে এভাবে জঙ্গি ভেবে নেওয়ার চরম ক্ষুব্ধ সুলেইমানের বাবা। তিনি বলেছেন, সুলেইমান কথা বলচে পারে না। ওর মানসিক ক্ষমতা এক বছরের শিশুর মতো। তিনি বলেছেন, এমন এক শিশুকে ওরা জঙ্গি বলে আখ্যা দিল। এটা একেবারেই মুর্খামি। প্রকৃত অর্থে বৈষম্যমূলক। এটা বৈষম্যমূলক আচরণের সামিল নয়, এটা ১০০ শতাংশ বৈষম্য।

পরিবারের অভিযোগ, মুসলিম হওয়ায় তাদের সন্তানের সঙ্গে ওই শিক্ষক এরকম আচরণ করল৷ ছেলেটির বাবা মাহের সুলেইমান বলেন, ডাউন সিনড্রোমে আক্রান্তকে জঙ্গি তকমা দেওয়া নির্বোধের কাজ৷ এটা বৈষম্য ছাড়া আর কিছু নয়৷ এদিকে গোটা ঘটনাটি তদন্ত করছে সেখানকার চাইল্ড প্রোটেকটিভ সার্ভিস৷