রোহিঙ্গা ইস্যুতে জেহাদের ডাক দিল মাসুদ আজাহার

রোহিঙ্গা ইস্যুতে জেহাদের ডাক দিল মাসুদ আজাহার

মায়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর যাতে অত্যাচার , হিংসা বন্ধ হয়ে ,সেবিষয়ে ভারতকে অগ্রণী ভূমিকা নিতে আহ্বান জানালো বাংলাদেশ। ভারতে স্থিত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সৈয়দ মুজ্জেম আলি জানিয়েছেন, 'ভারতের সঙ্গে মায়ানমারের সম্পর্ক ভালো। আমরা BIMSTEC -এর সদস্য। ভারত মায়ানমারকে বুঝিয়ে বলুক যে উদ্বাস্তুদের ফেরার জন্য যোগ্য পরিবেশ যাতে মায়ানমার তৈরি করতে পারে। এক্ষেত্রে কোফি আন্নানের রিপোর্টকে সত্ত্বর বলবৎ করা হোক।'

জঙ্গি সংগঠন জৈশ ই মহম্মদের নিজস্ব পত্রিকা রয়েছে- আল কালাম। তাতে মাসুদ আজহার বলেছে, সমগ্র মুসলিম সমাজ মায়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিমদের দুঃখ অনুভব করছে। রোহিঙ্গাদের আত্মবলিদানের মাধ্যমে তাদের এবার ঘুম ভাঙছে, জেগে উঠছে গোটা বিশ্বের মুসলিমরা।

মাসুদ বলেছে, রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য সকলকে যতটা সম্ভব করতে হবে। কীভাবে করবে দেখানোর দরকার নেই কিন্তু করতে হবে। থামলে চলবে না। এই প্রথম ভারতীয় উপমহাদেশের কোনও জঙ্গি দল রোহিঙ্গাদের সমর্থনে জেহাদের ডাক দিল। যদিও পাকিস্তানে এ ব্যাপারে বেশ কয়েকটি মিটিং, মিছিল ও প্রার্থনা সভা করেছে তারা।

                                 

উল্লেখ্য, ক্রমাগত রোহিঙ্গা মুসলিমরা শরণার্থী হয়ে আসতে থাকায়, দিন দিন উদ্বাস্তু সমস্যায় আরও জর্জরিত হচ্ছে বাংলাদেশ। বর্তমানে সেদেশে , প্রায় ৬,৭০,০০০ উদ্বাস্তু রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছেন বলে খবর।

 

উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে অনেকদিন ধরেই বিপর্যস্ত মায়ানমারের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। কিছুদিন আগেই সেখানে এক নাশকতা মূলক ঘটনার নেপথ্যে রোহিঙ্গা সমস্যাই মূল কারণ বলে মনে করা হচ্ছে। যে নাশকতার একযোগে সমালোচনা করেছে ভারত ও বাংলাদেশ। মাসুদ আজহারের দাবি, মায়ানমারের মুসলিমদের পাশে দাঁড়ানোর সময় এসেছে। যার দ্বারা যতটা সম্ভব, তা করতে হবে। নমাজ পাঠ করেই উঠে পড়ে কাজে লাগার ডাক দিয়েছে এই কুখ্যাত জঙ্গি। উল্লেখ্য, রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর অত্যাচারের প্রতিবাদ করে পাকিস্তানে মিছিল, সমাবেশ করা হলেও এই প্রথম সরাসরি মায়ানমার সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করল কোনও জঙ্গি সংগঠন।