পাকিস্তানে ভারতীয় তীর্থযাত্রীদের ওপর অত্যাচার কান্ডে ভারতকে পাল্টা চাপ ইসলামাবাদের

পাকিস্তানে ভারতীয় তীর্থযাত্রীদের ওপর অত্যাচার কান্ডে ভারতকে পাল্টা চাপ ইসলামাবাদের

পাকিস্তানে হিন্দু, খ্রিস্টান, শিখ, আহমেদি, হাজারা সহ বিভিন্ন ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর ভয়ঙ্কর অত্যাচার চলছে। এমনই জানাল একটি মানবাধিকার সংগঠন। বার্ষিক রিপোর্টে বলা হয়েছে, গত বছর পাকিস্তানে বহু মানুষ উধাও হয়ে গিয়েছেন।

তীর্থযাত্রী ইস্যু নিয়ে ভারতকে পাল্টা চাপে রাখার চেষ্টা করল ইসলামাবাদ। পাক বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র মহম্মদ ফয়জল জানিয়েছেন, ভারত সরকারই ১৯৭৪- প্রোটোকল লঙ্ঘন করে পাক তীর্থযাত্রীদের ভিসা অনুমতি দেয়নি । একবার নয় এক বছরে দু’বার এই কাজ করেছে নয়া দিল্লি। তাদের এই সমালোচনা হাস্যকর।

১৯৯৮ সালের জনগণনা অনুযায়ী, পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের সংখ্যা কমে মাত্র তিন শতাংশ হয়েছে। সংখ্যালঘুদের উপর অত্যাচার বন্ধ না হলে হিন্দুরা দলবদ্ধভাবে ভারতে চলে যেতে পারেন বলেও আশঙ্কা করা হয়েছে এই রিপোর্টে।খালি হাতে ফিরতে হয় ভারতীয় কূটনীতিকদের। তবে, নিরাপত্তা খাতিরে তাঁদের অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে জানিয়েছে পাক বিদেশমন্ত্রক তরফে। মন্ত্রকের আরও বক্তব্য, অকারণে শিখ তীর্থযাত্রীদের নিয়ে জলঘোলা করছে ভারত। দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নষ্ট করছে তারা।

২৯৬ পাতার এই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, মানুষের কন্ঠরোধ করার জন্যই ধর্মীয় অবমাননা আইন ব্যবহার করা হচ্ছে। সাংবাদিক ও ব্লগারদের উপরেও আক্রমণ নেমে আসছে। তাঁদের প্রায়ই হুমকি দেওয়া হচ্ছে এবং অপহরণ করা হচ্ছে।