চলতি বছরে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধির হার ৭.৩ শতাংশ হারে বাড়তে পারে

চলতি বছরে ভারতের আর্থিক বৃদ্ধির হার ৭.৩ শতাংশ হারে বাড়তে পারে

ফেরও ভারতের অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার  বাড়ার মুখে, চলতি বছরের আর্থিক বৃদ্ধির হার ৭.৩ শতাংশ হারে বেড়েছে বলেই সূত্রের খবর, একই সঙ্গে পরের ২ বছরে বৃদ্ধির হার ৭.৫ শতাংশে পৌঁছাবে। গতকাল ওয়াশিংটনে এই মর্মে একটি রিপোর্টে প্রকাশ করে বিশ্বব্যাঙ্ক।

যদিও ২০১৬ সালে কেন্দ্রের নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত এবং ২০১৭ সালে চালু হওয়া জিএসটির জেরে প্রাথমিকভাবে রাত্মক ধাক্কা খেয়েছে ভারতের অর্থনীতি। কিন্তু সেই ধাক্কা সামলে, এবার ঘুরে দাঁড়াবে ইন্ডিয়া, ২০১৮ গ্লোবাল ইকনোমিক প্রসপেক্টে এমনই দাবি করেছে বিশ্বব্যাঙ্ক। ওয়ার্ল্ড ব্যাঙ্কের ডেভেলপমেন্ট প্রসপেক্ট গ্রুপের ডিরেক্টর অয়ন কোসে পিটিআইকে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে বলেন, সমস্ত দিক খতিয়ে তাঁরা দেখেছেন আসন্ন দশকে তৃতীয় বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতের অর্থনীতির বৃদ্ধির হার সবচেয়ে ভাল।

সংবাদ সংস্থা PTI-কে বিশ্বব্যাঙ্কের ডেভেলপমেন্ট প্রসপেক্ট গ্রুপের অধিকর্তা আহন কোসে বলেন, “পরবর্তী দশকে অন্যান্য সম্ভাবনাময় বাজার অর্থনীতির তুলনায় সবচেয়ে সম্ভাবনাময় ভারত। আমি স্বল্পমেয়াদী সংখ্যার উপর ফোকাস করব না। ভারতের জন্য বড় ছবিটি দেখব। সেটা বলছে যে ভারতে বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে।

২০১৭ সালে চিনা অর্থনীতি ৬.৮ শতাংশ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। ভারতের চেয়ে তা ০.১ শতাংশ বেশি। ২০১৮ সালে তা কমে ৬.৪ শতাংশে নেমে যাবে এবং তার পরের দুই বছরে তা নেমে ৬.৩ ও ৬.২ হয়ে যাবে। এখানেই এগিয়ে যাবে ভারত। তবে বিনিয়োগে জোর দিতে হবে ভারতকে। এমনটাই মনে করছে বিশ্বব্যাঙ্ক।