জামাকাপড় ছাড়াই এই জায়গাগুলিতে ঘেরা যায়

জামাকাপড় ছাড়াই এই জায়গাগুলিতে ঘেরা যায়

বেড়াতে যাওয়ার কথা শুনলেই মনটা আনন্দে নেচে ওঠে. উফ একঘেঁয়েমি অফিস-বাড়ি করে ক্লান্ত, বেড়াতে যেতে চাইলে সবার আগে অজানা দেশে-বা বিদেশে পাড়ি দেোয়ার স্বপ্ন জাগে মনে, অনেক ভ্রমন পিপাসু মানুষরা বিভিন্ন দেশে গিয়ে সেখানকার বিশেষত্বকে জানার চেষ্টায় ব্রতী থাকেন, বিশেষ করে তাদের টান থাকে সমুদ্রের প্রতি

 

রাস্তাঘাটে পোশাক ছাড়া বেড়োলে নানা রকম ব্যাঙ্গাত্মক কথা যেমন শুনতে হয়, তেমনি আমাদের ভদ্র সমাজে পোশাক ছাড়া বাইরে বেরোনো কাঙ্খিত নয়, অথচএমন কয়েকটি নামজাদা বীচ রয়েছে যেখানে কোনও পোশাক ছাড়াই ঘোরাফেরা করা যায়, আসুন দেখা যাক সেই বীচগুলি সম্পর্কে কিছু তথ্য-

 

 

এলিয়া বীচ- গ্রীসে অবস্থিত  মাইকোনাস দ্বীপের সবথেকে বড় সি বীচ এলিয়া বীচ, এখানে মূলত LGBT-দের ভিড় লক্ষ্য করা যায়। মেয়েদের জন্য রয়েছে বিচের বাঁদিকটা। আর পুরুষদের দেখা যায় ডানদিকে। পোশাক ছাড়া সমুদ্র সৈকতে বসে এলিয়া বিচকে উপভোগ করতে হলে ছাতা থেকে শুরু করে বিচ চেয়ার সব ভাড়া পাওয়া যাবে ওখানেই। 

 

লিটল বীচ- হাওয়াই দ্বীপে অবস্থিত,  এখন এই বিচ বিশ্বের সেরা নিউড বিচগুলোর মধ্যে একটা। এখানে রবিবারের সন্ধে মানেই ড্রাম সার্কলস আর ফায়ার ড্যান্সিং। একরকম অন্যরকম আনন্দ বিরাজ করে এই সমুদ্র সৈকতে।

 

গ্র্যান্ড স্যালাইন বীচ- সেন্ট বার্থ নামেই পরিচিত, ক্যারাবিয়ান দ্বীপে রয়েছে এই বীচটি, এখানে পোশাক ছাড়া ঘোরা যায়

 

ক্যাপ দি অর্গে – এর অন্য নাম ন্যাকেড সিটি, ফ্রান্সে অবস্থিত, এখানে পোশাক ছাড়াই শপিং থেকে ঘোরাফেরা করাই যায়

 

হওলোভার বীচ- মিয়ামি আর ফোর্ট লওদেরদালের মাঝে রয়েছে হওলোভার বিচ। হাফ মাইল লম্বা এই বিচে রয়েছে সবরকম সুবিধা। বিনা পোশাকে ঘোরার স্বাধীনতার পাশাপাশি এই বিচে রয়েছে কড়া নিরাপত্তাও।