কেন অমরনাথে জয়ধ্বনি নিষিদ্ধাজ্ঞা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার

কেন অমরনাথে জয়ধ্বনি নিষিদ্ধাজ্ঞা করেছে কেন্দ্রীয় সরকার

প্রাকৃতিক পরিবেশ রক্ষা করার জন্য দক্ষিণ কাশ্মীর হিমালয়ের অমরনাথ গুহাকে ‘সাইলেন্স জোন’ হিসেবে ঘোষণা করল জাতীয় গ্রিন ট্রাইব্যুনাল (এনজিটি)।এদিন পরিবেশ আদালতের চেয়ারপার্সন বিচারপতি স্বতন্ত্র কুমারের বেঞ্চ এক নির্দেশে বলেন, ৩,৮৮৮ মিটার উপরে অমরনাথের গুহায় ঘণ্টা বাজানো যাবে না।পুণ্যার্থীদের সরঞ্জাম রাখার জন্য আলাদা ঘর তৈরির বিষয়টিও বিবেচনা করার কথা কর্তৃপক্ষকে মনে করিয়ে দিয়েছে পরিবেশ আদালত।

এছাড়াও ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনাল জানিয়েছে, গুহা মন্দিরে  কোনওভাবেই মন্ত্র উচ্চারণ বা জয় জয়কার ধ্বনি তোলা যাবে না। ট্রাইবুনালের  এই নির্দেশ যাতে  অক্ষরে অক্ষরে পালিত হয় সেবিষয়টির দায়িত্ব রয়েছে অমরনাথ বোর্ডের ওপর। 

এনজিটি জানিয়েছে, অমরনাথে তুষারধস রোখা এবং এই গুহার আদি রূপ বজায় রাখার জন্যই এই জায়গাটিকে ‘সাইলেন্স জোন’ হিসেবে ঘোষণা করা হচ্ছে। গুহার মধ্যে কোনওরকম শব্দ করা যাবে না। আদালত আরও নির্দেশ দিয়েছে, মন্ত্রোচ্চারণ বা জয়ধ্বনি করা করতে পারবেন না ভক্তরা। শিবলিঙ্গের চারপাশে যে লোহার গ্রিল রয়েছে, তাও সরিয়ে দিতে হবে। যাতে দেব-দর্শনে অসুবিধা না হয় পুণ্যার্থীদের। পাশাপাশি চেক পোস্ট থেকে ভক্তদের যাতে লাইন না পড়ে, তাও নিশ্চিত করতে হবে মন্দির কর্তৃপক্ষকে।