ব্লু হোয়েলের পর নতুন গেম আতঙ্ক মোমো

ব্লু হোয়েলের পর নতুন গেম আতঙ্ক মোমো

নাহ এ কোনও খাবার নয়, এ খেলে, মরন খেলা, ব্লু হোয়েল গেমের আতঙ্ক কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই ফের অনলাইন গেমের আতঙ্ক ছড়িয়েছে ৷ এবার আতঙ্কের নাম ‘মোমো’৷ মূলত হোয়াটস অ্যাপের মাধ্যমে ভাইরাল হচ্ছে এই অদ্ভুত গেম।

বিভিন্ন দেশের সাইবার অথরিটি মোমো চ্যালেঞ্জ নিয়ে ইতিমধ্যে দুশ্চিন্তায় পড়েছে। আর্জেন্টিনায় এরই মাঝে ১২ বছর বয়সী এক মেয়ে এই গেমের ফাঁদে পড়ে প্রাণ হারিয়েছে বলে খবর। তার পর থেকেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, জার্মানি, আর্জেন্টিনা, মেক্সিকোর মতো দেশগুলোতে অনলাইন গেমের ক্ষেত্রে সতর্কতা বাড়ানো হয়েছে। এখন প্রশ্ন হল, এই মোমো চ্যালেঞ্জ আসলে ঠিক কেমন! যাঁকে টার্গেট করা হবে তাঁকে হোয়াটস অ্যাপে পাঠানো হবে একটা লিঙ্ক। টেক্সট করে তাঁকে অজানা এক নাম্বারে 'মোমো' লিখতে বলা হবে। মোমো লিখে টেক্সট করার মানে সে এই গেমে অংশ নিতে আগ্রহী। এর পর থেকেই গেমার বিভিন্ন রকম ভূতুড়ে ছবি পেতে শুরু করবে। সঙ্গে একের পর এক চ্যালেঞ্জ। ব্লু হোয়েলের মতোই এই গেমও শেষ হবে গেমারের মৃত্যু দিয়ে। অর্থাত্ কোনও না কোনও অছিলায় গেমারকে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করানোই আসল উদ্দেশ্য। ঠিক ব্লু হোয়েলের মতো

 ‘হোয়াটসঅ্যাপ কন্যা মোমো কী ও কে?’

রেডিট বলছে, ‘একটি ভিডিও পেয়েছি এটি সম্পর্কে এবং এটি ভীতিকর’। সবচেয়ে জনপ্রিয় উত্তর ছিল, স্প্যানিশভাষী কোনও দেশ থেকে একজন ইনস্টাগ্রাম থেকে একটি ছবি নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট তৈরি করে। লোকজন সেখান থেকে একটি কন্টাক্ট নম্বর পায় ও গুজব ছড়িয়ে পড়ে যে কেউ একে স্পর্শ করলে সে তাকে গ্রাফিক ছবি ও বার্তা দেবে। কেউ কেউ বলেন যে, ব্যবহারকারীর সব ব্যক্তিগত তথ্যে তার প্রবেশাধিকারের সুযোগ আছে।

বহু মানুষ মোমোর সঙ্গে পোজ দিয়ে ছবি তুলেছে এবং এমন বহু ছবি সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রামে প্রকাশিত হয়েছে। মেক্সিকোর পুলিশের দাবি, কেউ ইনস্টাগ্রাম থেকে ওই অনুষ্ঠানের ছবি নিয়ে সেটাকেই কেটে কুটে এমন বানিয়েছে