গ্রাহকদের মেসেজ ও ফটো থেকে তথ্য সংগ্রহ করছে ফেসবুক

গ্রাহকদের মেসেজ ও ফটো থেকে তথ্য সংগ্রহ করছে ফেসবুক

ফেসবুকের তথ্য চুরির ঘটনা নতুন নয়। কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কান্ডের পর ফেসবুক কর্তা মার্ক জুকারবার্গ স্বীকারও করেছেন ফেসবুকের নয় কোটি গ্রাহকের তথ্য চুরির কথা। এবার আবারও প্রকাশ্যে এল গ্রাহকদের ফটো ও মেসেজ থেকে তথ্য চুরির কথা।

সূত্রের খবর, বানিজ্যিক কারণে ফেসবুক তথ্য সংগ্রহ করছে। তথ্যগুলির আওতায় পড়ছে মেসেজ, ফটো, লোকেশন ট্র্যাকিং, মাইক্রোফোনে কথা বলা এবং কল ডিটেলস। যদিও ফেসবুকে তরফ থেকে অভিযোগকে ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলেই খবর। সম্মতি ছাড়া কোনও তথ্য নেওয়া হয়না বলেই দাবি ফেসবুকের।

কোম্পানি আরো বলেছে অ্যান্ড্রয়েড এবং ফেসবুকে লাইটের জন্য তথ্য লগিং , অপ্ট-ইন ফিচারের অংশ এবং ব্যবহারকারীদের বৈশিষ্ট্যটি ব্যবহার করার জন্য স্পষ্টভাবে সম্মত হতে হবে এবং এটি যেকোনো সময় বন্ধ করতে পারবে।  ২015 সালে ফেসবুকের নীতিতে পরিবর্তনের পর, তৃতীয় পক্ষের ডেভেলপার বন্ধু ডেটা অ্যাক্সেস করতে সীমাবদ্ধ ছিল, যা কোম্পানিকে তার ব্যবসার মডেলটি ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।