২৭৪ রানে থেমে গেল ভারতের ইনিংস

২৭৪ রানে থেমে গেল ভারতের ইনিংস

ভারত তিনশোর গণ্ডি ছুঁতে পারল না৷সাত উইকেটে ২৭৪ রানে থেমে গেল ভারতীয় ইনিংস৷শুরুটা ভালো হলেও জোড়া রান-আউটে মেরুদণ্ড ভেঙে যায় টিম ইন্ডিয়ার মিডল-অর্ডারের৷সেখান থেকে আর মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারেনি টিম কোহলি৷

শেষ ১০ ওভারে ভারত তুলল মাত্র ৫৫ রান। জোহানেসবার্গে করেছিল ৫৯ রান। প্রথম তিন ব্যাটসম্যান যেভাবে রান তুলেছেন, তা শেষপর্যন্ত বজায় রাখতে পারল না মিডল অর্ডার।

১৭ বলে ১৩ রান করে আউট ধোনি। ৪৮.২ ওভারে ২৬৫ রানে সপ্তম উইকেটের পতন ভারতের।

ইনিংসের শেষের দিকে রানের গতি নিম্নমুখী ভারতের। রোহিত আউট হওয়ার পর ফিরলেন শ্রেয়সও। ৩৭ বলে ৩০ রান করে আউট হলেন তিনি। ৪৪.২ ওভারে ২৩৮ রানে ষষ্ঠ উইকেটের পতন হয়।

 

টসে হেরে বিরাট বলেন, “আমরাও টসে জিতলে এই উইকেটে প্রথমে বল করার সিদ্ধান্ত নিতাম। প্রথমে একটা নির্দিষ্ট লক্ষ্যমাত্রার মধ্যে ওদের আটকে রাখতাম। তারপর সেই রানটা তাড়া করতাম। আমাদের তো ইচ্ছে যে ৫০ ওভারই রিস্ট স্পিনারদের দিয়ে বল করাই। কারণ ওরা যে কোনও উইকেটেই বিধ্বংসী হয়ে উঠছে। কিছু তো আর করার নেই। এই উইকেটেই ভালো করে খেলতে হবে।”

তিনি আরও বলেন, “দেখে মনে হচ্ছে, এই উইকেট ব্যাট করার জন্য খুবই ভালো। এই ম্যাচটা ওদের জিততেই হবে। এই সিরিজ়ে আমরাই আপাতত এগিয়ে রয়েছি। ফলে অ্যাডভান্টেজ আমাদের দিকেই রয়েছে। ওদের সামনে আমরা একটা বড়সড় লক্ষ্যমাত্রা রাখতে চাই।

কেপ টাউনের ৭৭০ কিলোমিটার পূর্বে দক্ষিণ আফ্রিকার বন্দর শহর পোর্ট এলিজাবেথ৷যার ডাক নাম ‘ফ্রেন্ডলি সিটি’ অথবা ‘দ্য উইন্ডি সিটি’৷কিন্তু এই বন্ধুত্বের শহরে সতীর্থদের রান-আউটের জন্য দায়ী হলেন টিম ইন্ডিয়ার ‘হিট-ম্যান’৷ তৃতীয় ওয়ান ডে-তে নিউল্যান্ডসে অনেকটা একইভাবে শিখর ধাওয়ানের রান-আউটের পিছনে দোষ ছিল ক্যাপ্টেন কোহলির৷কিন্তু ধাওয়ান রান-আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফিরলেও একার কাঁধে ইনিংসের দায়িত্ব নিয়েছিলেন বিরাট৷