সুহেরের হ্যাটট্রিক,লিগ অভিযানে ইস্টবেঙ্গলের জয়

সুহেরের হ্যাটট্রিক,লিগ অভিযানে ইস্টবেঙ্গলের জয়

মহড়া ও আসল ম্যাচের মধ্যে যে পার্থক্য অনেকটা, বুঝিয়ে দিল ইস্টবেঙ্গল। এই রেনবোর কাছে মাত্র কয়েকদিন আগে প্রস্তুতি ম্যাচে আটকে গিয়েছিল লাল-হলুদ। লিগ অভিযানের প্রথম ম্যাচে সেই দলকেই ৪–১ ব্যবধানে হারাল ইস্টবেঙ্গল।

প্রথম ম্যাচেই হ্যাটট্রিক করে সমর্থকদের মাতিয়ে দিলেন ভি পি সুহের। অপর গোলটি করেন ব্র্যান্ডন। রেনবোর হয়ে ব্যবধান কমান ছোট্টু মন্ডল। ইস্টবেঙ্গলের কোচ হিসেবে প্রথম প্রতিযোগিতামূলক ম্যাচেই জয় পেলেন খালিদ জামিল।

এবারের ইস্টবেঙ্গল দলে বেশিরভাগ ফুটবলারই প্রথমবার কলকাতায় খেলছেন। আজ ইস্টবেঙ্গলের প্রথম একাদশে গোলকিপার লুই ব্যারেটো, দুই ডিফেন্ডার অর্ণব মন্ডল ও সামাদ আলি, মিডফিল্ডার মহম্মদ রফিক ও উইলিস প্লাজা ছাড়া সবাই প্রথমবার লাল-হলুদ জার্সি পরে খেললেন। তবে তাতেও বড় ব্যবধানে জয় পেল খালিদের দল।

২-০ গোলে প্রথমার্ধের খেলা শেষ করার পর দ্বিতীয়ার্ধেও চাঙ্গা হয়ে নামে ইস্টবেঙ্গল। নামার মিনিট খানেকের মধ্যেই ফের গোল। হ্যাটট্রিক সেরে নেন সুহের ভিপি। গোটা মাঠে দৌড়ে খেলেন চুল্লোভা, ব্র্যান্ডনরা। ইস্টবেঙ্গল জার্সি গায়ে প্রথমবার মাঠে নেমেই ৭২ মিনিটে গোল করেন ব্র্যান্ডন। ৭৭ মিনিটে একটি গোল শোধ করে প্রথমবার প্রিমিয়ার ডিভিশনে খেলতে আসা রেনবো। গোল করেন ছোট্টু। উত্তর চব্বিশ পরগণা থেক প্রথমবার কোনও দল কলকাতা লিগের প্রিমিয়ার ডিভিশনে খেলার সুযোগ করে নিয়েছে। এরপরও ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা গোলের সুযোগ তৈরি করলেও আর ব্যবধান বাড়েনি। তবে মরশুমের প্রথম ম্যাচে দলের ছন্দ দেখে খুশি লালহলুদ সমর্থকরা।

আটে আট হবে কি না, সেটা সময়ই বলে দেবে। তবে ইস্টবেঙ্গল যেভাবে নয়া মরসুমের শুরুটা করল, তাতে স্বপ্ন দেখা শুরু করে দিয়েছেন সমর্থকরা।