বাহান্ন বছরের ইতিহাসে ছেদ, ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া

বাহান্ন বছরের ইতিহাসে ছেদ, ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া

দুর্দান্ত ইংল্যান্ডকে হারিয়ে অবশেষে ফাইনালে ক্রোয়েশিয়া, ৫২ বছর পর বিশ্বকাপ জয়ের লক্ষ্যে এসে আবার পথ হারাল ইংল্যান্ড। ইংরেজদের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে প্রথমবার বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠে ইতিহাস গড়ল ক্রোয়েশিয়া।

১৯৬৬ সালে ঘরের মাঠে বিশ্বকাপে একবারই মাত্র বিশ্বকাপ জিতেছিল ইংল্যান্ড। এবার অধিনায়ক হ্যারি কেনের নেতৃত্বে দারুণ সুযোগ রয়েছে। এদিকে ক্রোয়েশিয়ার কাছেও সুযোগ রয়েছে প্রথমবার ফাইনালে ওঠার। দুই দলেই দারুণ খেলোয়াড় রয়েছেন। ইংল্যান্ডের ডেলে আলি, হ্য়ারি কেনরা যেমন রয়েছে তেমনই ক্রোয়েশিয়ায় লুকা মডরিচ, রাকিটিচরা রয়েছেন।

গতকাল গভীর রাতে ম্যাচ শুরুর ৫ মিনিটের মধ্যেই গোল দিয়ে এগিয়ে যায় ইংল্যান্ড। উল্টোদিকে বেশ জড়োসড়ো লাগছিল ক্রোটদের। ইংল্যান্ডের হয়ে গোল করেন ফ্রি কিকে গোল করেন কিরান ট্রিপির। এরপর দ্বিতীয় গোল করার বেশ কয়েকটি সুযোগ পেলেও অধিনায়ক হ্যারি কেন, জেসে লিঙ্গার্ড ও রহিম স্টার্লিং সেই সুযোগ কাজে লাগাতে পারেননি। তা সত্ত্বেও বিরতি পর্যন্ত ১-র-য় এগিয়ে ছিল তারা।

দ্বিতীয়ার্ধ্বে তেড়ে ফুঁড়ে খেলা শুরু করে ম্যাচ ধরে নেয় ক্রোয়েশিয়া। তাদের দুই ডিফেন্ডারকে টপকে হ্যারি কেন আর বিশেষ সুবিধে করতে পারেননি।

দ্বিতীয়ার্ধে ম্যাচের ১০৯ মিনিটে মারিও মানজুকিচের গোলে এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। ২৮ বছর পর বিশ্বকাপের সেমি ফাইনালে উঠলেও হারতে হল থ্রি লায়ন্সদের।