বিজ্ঞান প্রসারে আঞ্চলিক ভাষা বেশি করে ব্যবহার করার দাবি প্রধানমন্ত্রী

বিজ্ঞান প্রসারে আঞ্চলিক ভাষা বেশি করে ব্যবহার করার দাবি প্রধানমন্ত্রী

বিজ্ঞানের প্রসারে আঞ্চলিকে ভাষার ওপরে গুরুত্ব অনেক তাই আঞ্চলিক ভাষা ব্যবহারে জোর দিতে আমন্ত্রন বিজ্ঞানীদের, তাঁর মন্তব্য, ভাষা কোনও বাধা নয়, বরং তা নতুন সুযোগ তৈরি করে। আঞ্চলিক ভাষায় বিজ্ঞান পড়ানো হলে তাতে যুব সমাজের প্রতি বিজ্ঞানের প্রতি ভালবাসা বাড়বে।

উপস্থিত হতে না পারলেও ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এই অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রী। বক্তব্যের প্রথমেই বাংলায় সবাইকে ইংরেজি নববর্ষের শুভেচ্ছা জানান। তারপর বলেন, “১৮৯৪ সালে আজকের দিনে জন্ম নেওয়া এই বিজ্ঞানীর ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আমরা সারাবছর ধরে বিভিন্ন অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা করেছি। তৎকালীন সময় ও সামাজিক পরিস্থিতির বিচারে তাঁর দূরদর্শিতা ও কর্মকাণ্ড অনেক এগিয়ে ছিল। তা থেকে অনেক কিছুই শিখেছি। তবে এখনও আচার্য এস এন বসুর জীবন এবং কাজ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে।

আপনাদের উদ্ভাবনের ফলে কি গরিবের কোনও উপকার হয়েছে, মধ্যবিত্তের জীবন সংগ্রাম কিছুটা হলেও কমেছে? বিজ্ঞানী মহলের প্রতি প্রশ্ন রেখেছেন তিনি।আর বিজ্ঞানের প্রতি যুব সমাজের ভালবাসা বাড়াতে প্রয়োজন আরও বেশি করে মাতৃভাষার ব্যবহার।

ব্যক্তিগত জীবনে সত্যেন্দ্রনাথ ছিলেন নিরলস, কর্মঠ ও মানবদরদী একজন মনীষী। যাঁর বিজ্ঞানের পাশাপাশি সংগীত এবং সাহিত্যেও ছিল আন্তরিক আগ্রহ ও ভালোবাসা। শুধু তাই নয়, স্বাধীনতার লড়াইয়ে যুক্ত বিপ্লবীদের সঙ্গে গোপনে যোগাযোগও রাখতেন এই মহান দেশপ্রেমিক। সারা জীবন ধরে দেশ ও বিজ্ঞানসাধনায় সময় অতিবাহিত করা এই মহান বিজ্ঞানী প্রয়াত হন ১৯৭৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি।