হিন্দু মেয়েকে ভালোবেসে বিয়ে করতে গিয়ে প্রহৃত মুসলিম যুবক

হিন্দু মেয়েকে ভালোবেসে বিয়ে করতে গিয়ে প্রহৃত মুসলিম যুবক

হিন্দু মেয়েকে ভালোবেসে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন এক মুসলিম যুবক। কিন্তু তার পরিনাম হলো ভয়ংকর। ব্যস্ত রাস্তায় বেদম প্রহার জুটল ওই যুবকের কপালে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে। সোমবার দুপুরে গাজিয়াবাদ কোর্টে রেজিস্ট্রি করে হিন্দু মেয়েটিকে বিয়ে করতে এসেছিলেন ২৫ বছরের মুসলিম যুবকটি। তিনি নয়ডার একটি সংস্থায় কাজ করেন। 

পুলিস সূত্রে জানা গেছে, মুসলিম যুবকটির বাড়ি ভোপালে। হিন্দু মহিলাটির বাড়ি উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরে। নয়ডায় একই সংস্থায় কাজ করেন দু'জনে। সেখানেই প্রেম ও তারপর বিয়ের সিদ্ধান্ত। জানা গিয়েছে, নিরাপত্তার কারণেই তারা নয়ডার বদলে গাজিয়াবাদে বিয়ে করতে এসেছিলেন। কিন্তু বুঝতে পারেনি গাজিয়াবাদে এরকম ঘটনা ঘটবে। ওই যুগল এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আক্রমণকারীদের বিরুদ্ধে কোনো মামলা দায়ের করেননি বলে জানা গিয়েছে। ‌‌

সোমবার ওই আদালত চত্বরে আসা মাত্রই একদল দক্ষিণপন্থী তাঁকে ঘিরে ধরে ও মারতে থাকে। এই ঘটনার ভিডিও মিলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, ব্যস্ত রাস্তায় এক যুবককে ৬-৭ জন মিলে মারছে। অথচ বাঁচানোর জন্য কেউ এগিয়ে এলো না। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় ও মুসলিম যুবককে উদ্ধার করে। তবে এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। 

এক পুলিশ আধিকারিক এই সম্পর্কে জানিয়েছেন, '‌বিনোদ এবং নভনীত নামে দুই যুবকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। বাকিরা ছিলেন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি। এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি।'