১৫ বছর বয়সেই পিএইচডি করছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কিশোর তানিষ্ক

১৫ বছর বয়সেই পিএইচডি করছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কিশোর তানিষ্ক

১৫ বছর বয়সেই পিএইচডি করতে চলেছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কিশোর! হ্যা এমনটাই ঘটেছে মার্কিন মুলুকে। ১৫ বছর বয়সেই স্কুল ও কলেজের পড়াশোনার শেষ! তাই ডক্টরেটের প্রস্তুতি নিচ্ছে এই কিশোর। ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন কিশোরের নাম তানিষ্ক আব্রাহাম। ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বায়োকেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে স্নাতক হওয়ার পর পিএইচডি শুরু করতে চলেছে এই কিশোর। গোটা বিশ্ব হতবাক তানিষ্ককে দেখে, সাথে সাথে পরিবারও।

তানিষ্ক-এর মায়ের নাম তাজি আব্রাহাম, যিনি পেশায় একজন ডক্টরেট পশু চিকিৎসক। দাদু দিদাও এখন অবসর নিলেও তাঁরা দু’জনেই পশু চিকিৎসক। বাবা বিজৌ আব্রাহাম একজন তথ্যপ্রযুক্তিবিদ। আদতে কেরালার বাসিন্দা আব্রাহাম পরিবার দীর্ঘদিন ধরেই মার্কিন মুলুকে বসবাস করছে। 

তানিষ্ক ছোট থেকে প্রতিভাবান। ছেলে যে এমন প্রতিভার আধার মা তাজি তা টের পেয়ে যান বছর দশেক আগেই। নার্সারিতে পড়ার সময়ই উঁচু ক্লাসের অঙ্ক মুহূর্তেই সমাধান করে দিত তানিষ্ক। এই দেখে অভিভাবকরা তাকে অনলাইনে কলেজে পড়ার সুযোগ করে দেন। স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় আয়োজিত একটি প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে ক্যালকুলাসের কঠিন অঙ্কের সহজেই সমাধান করে ফেলে সে। তারপর সাতবছর বয়সেই তিনটি কলেজে ডিগ্রি কোর্সে ভর্তি হয়ে যায়। কলেজের পড়াশোনা শেষ হলে পরের গন্তব্য ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়। সেখানে বায়োকেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে পড়াশোনার পাট টুকিয়ে এবার পিএইচডি করবে তানিষ্ক। সেই সঙ্গে চলবে গবেষণার কাজও।

ক্যানসারের মত মারণ রোগকে কাবু করতে চায় এই বিস্ময় কিশোর। শুধু ক্যানসার সারিয়ে রোগীকে সুস্থ করে তোলাই নয়, একই সঙ্গে ক্যানসার প্রতিরোধের উপায় মানুষের হাতের মুঠোয় আসুক এমনটাই ইচ্ছে তানিষ্কের।