ভারতীয় মহিলাকে নগ্ন হতে বললেন বিমানবন্দরের কর্মীরা

ভারতীয় মহিলাকে নগ্ন হতে বললেন বিমানবন্দরের কর্মীরা

এক প্রবাসী ভারতীয়কে আবারও অপমান হতে হলো বিদেশের মাটিতে। বর্ণবৈষম্যের শিকার হলেন এক ভারতীয় নারী। আইসল্যান্ডের ফ্র্যাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরে চেকিংয়ের সময় তাঁকে নগ্ন হতে বললেন বন্দরকর্মীরা। গোটা বিষয়টি জানিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন ৩০ বছর বয়সী শ্রুতি বাসাপ্পা। শ্রুতি গত ছ'বছর ধরে ইউরোপের দেশেই বসবাস করছেন। আইসল্যান্ডের নাগরিকের সঙ্গেই বিয়ে করেছেন তিনি। গত সপ্তাহে বেঙ্গালুরু থেকে একাই আইসল্যান্ড ফিরছিলেন শ্রুতি। সেখানেই বিমানকর্মীরা চেকিংয়ের সময় তাঁকে নগ্ন হতে বলেন। 
কর্মীদের তিনি অনুরোধ জানান, তাঁর পোশাকের উপর দিয়েই যেন সারা দেহ সার্চ করা হয়। তিনি এও বলেন, সপ্তাহ দুয়েক আগেই পেটে একটি অস্ত্রোপচার হয়েছে তাঁর। তাই যেন তাঁকে সাবধানে সার্চ করা হয়। এমনকী বিমানকর্মীদের কাছে নিজের বিশ্বাসযোগ্যতা প্রমাণের জন্য শ্রুতি তাঁর মেডিক্যাল কাগজপত্রও দেখান। কিন্তু তাতেও কোনও লাভ হয়নি। শ্রুতির অভিযোগ, নিজেদের নির্দেশে অনড় ছিলেন বিমানকর্মীরা। গোটা ঘটনার বিবরণ দিয়ে ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন তিনি। শ্রুতির কথায়, ' নিজের স্বামীকে আকৃষ্ট করার জন্য যা যা করতে হয় না, এবার নিশ্চয়ই বিমানবন্দরে সে সবও করার নির্দেশ দেওয়া হবে আমাকে। বিরক্তিকর একটি পরিস্থিতির মধ্যে পড়ে গিয়েছিলাম। ' 
কিন্তু তাঁর স্বামী আসার পরেই পরিস্থিতি বদলে যায়। সাধারণ নিয়মে চেকিং করেই ছেড়ে দেওয়া হয় শ্রুতিকে। আর তাঁর অভিযোগ বর্ণবৈষম্যের জন্যই এই হয়রানির শিকার হলেন তিনি। পরে যদিও ফ্র্যাঙ্কফুর্ট বিমানবন্দরের তরফে এমন ঘটনায় শোকপ্রকাশ করে বলা হয়, ' শুনে অত্যন্ত অবাক লাগছে। কারও জন্যই এ ধরনের চেকিং বাধ্যতামূলক নয়। কোথায় এবং কোন সময় ঘটনাটি ঘটেছিল, আপনার থেকে বিস্তারিত জানতে চাই। ' বন্দর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে হেনস্তার অভিযোগ দায়ের করেছেন শ্রুতি।