আমেরিকায় নাবালিকা মেয়েদের যৌনচ্ছেদ করতেন প্রবাসী ভারতীয় চিকিৎসক, গ্রেফতার

আমেরিকায় নাবালিকা মেয়েদের যৌনচ্ছেদ করতেন প্রবাসী ভারতীয় চিকিৎসক, গ্রেফতার

নাবালিকা মেয়েদের যৌনচ্ছেদ করতেন এই ডাক্তার। এমনিতে তিনি ডাক্তার, কিন্তু সেই পেশার আড়ালেই রমরমিয়ে চলছিল তার এই বেআইনি ব্যবসা। এই অভিযোগ উঠেছে ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তারের বিরুদ্ধে। নাম জুমানা নাগারওয়ালা। আমেরিকায় মিশিগান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে অভিযুক্ত চিকিৎসককে। বিশ্বের বেশ কয়েকটি দেশে বিশেষ করে আফ্রিকা, এশিয়া ও মধ্য প্রাচ্যের বেশ কয়েকটি জায়গায় এই প্রথা এখনো চালু রয়েছে। সাধারণত ধর্মীয় প্রথা হিসেবেই এটিকে মানা হয়। অনেকের মতে মহিলাদের অতিরিক্ত যৌন আকাঙ্খা ও লিঙ্গবৈষম্য দূর করতেই যন্ত্রণাদায়ক প্রক্রিয়াটি করা হয়ে থাকে। কিন্তু আমেরিকায় বহুদিন ধরেই নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে এটিকে। ১৯৯৬ সালে মার্কিন কংগ্রেসে এই মর্মে বিলও পাশ হয়। যাতে বলা হয় ১৮ বছরের নিচে কোনও মেয়ের যৌনচ্ছেদ করা যাবে না। পরবর্তীকালে ১৯৯৭ সালেই আইনটি প্রণয়ন করা হয়।
অভিযোগ, এর পরও দীর্ঘদিন ধরে নাবালিকাদের নির্বিচারে যৌনচ্ছেদ চালিয়ে যাচ্ছিল ওই প্রবাসী চিকিৎসক। মিশিগানে নিজের ব্যক্তিগত চেম্বারে এই কাজ করত সে। বেশিরভাগ মেয়েদেরই বয়স ৬ থেকে ৮ বছরের মধ্যে হত। এর জন্য মোটা টাকা নিত সে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে দুই সাত বছরের নাবালিকার পরিবারের অভিযোগে গ্রেপ্তার করা হয়েছে জুমানাকে।
জানা গিয়েছে, গুজরাটি ও ইংরাজি ভাষায় দক্ষ জুমানার কাছেই বেশিরভাগ মেয়েদের নিয়ে আসা হত। এটা ছাড়াও আর অন্য কোনও অপরাধের সঙ্গে অভিযুক্ত চিকিৎসক যুক্ত কিনা তাও খতিয়ে দেখবে পুলিশ। খুব শিগগিরিই তাকে ডেট্রয়েটের ফেডারেল কোর্টে তোলা হবে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে পাঁচ বছর পর্যন্ত কারাদন্ড।