ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সেনেটরের বাড়িতেও পাঠানো হয়েছে পার্সেল বোমা

ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সেনেটরের বাড়িতেও পাঠানো হয়েছে পার্সেল বোমা

প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, ভাইস প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন, বিদেশসচিব হিলারি ক্লিনটন, অভিনেতা রবার্ট ডি নিরো’র পর এবার এবার পার্সেল বোমা পাঠানো হল ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন সেনেটরের বাড়িতে। এই ঘটনায় শুক্রবার এক ডোনাল্ড ট্রাম্প সমর্থককে গ্রেফতারও করেছে এফবিআই। কিন্তু তার পরেও আইইডি বিস্ফোরক পাঠানোর ঘটনা ঘটে যাচ্ছে। ভারতীয় বংশোদ্ভূত সেনেটর কমলা হ্যারিস ও কোটিপতি ডেমোক্র‌্যাট টম স্টেয়ারের বাড়িতেও গেল এরকম পার্সেল বোমা। 

কমলা হ্যারিস প্রথম মহিলা ভারতীয় বংশোদ্ভূত সেনেটর। ক্যালিফোর্নিয়ার প্রতিনিধি কমলা হ্যারিসকে অনেকে সম্ভাব্য ‘প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী’ বলেও মনে করেন। তাঁর ও টম স্টেয়ারের বাড়িতে পাঠানো প্যাকেটের সঙ্গে ওবামা, ক্লিনটনদের পাঠানো প্যাকেটের প্রচুর মিল রয়েছে। এছাড়াও সন্দেহজনক প্যাকেট এসেছে জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার প্রাক্তন ডিরেক্টর জেমস ক্ল্যাপারের নিউ ইয়র্কের বাড়িতেও। 

এই সবকটি ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে বছর ছাপ্পান্নর সিজার সায়োক নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে এফবিআই। জানা গিয়েছে, খাম থেকে পাওয়া আঙুলের ছাপের সূত্র ধরেই সিজার সায়োকের নাম সামনে আসে। ওই ব্যক্তি ফ্লোরিডার বাসিন্দা। সিজার সায়োক আগে পিৎজা ডেলিভারির কাজ করত। পরে ফ্লোরিডার একটি পানশালায়ও কাজ করেছে সে। এফবিআই সূত্রে খবর, এর আগেও কয়েকটি অপরাধমূলক কাজে নাম জড়িয়েছে সিজারের। টুইটারে ডেমোক্র‌্যাটদের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

ঘটনার প্রেক্ষিতে মার্কিন অ্যাটর্নি জেনারেল জেফ সেশনস বলেন, ''আমরা এই ধরনের ঘটনা বরদাস্ত করব না। বিশেষ করে এই ধরনের রাজনৈতিক হিংসা সহ্য করব না।''