বিরোধীদের এককাট্টা করতে নৈশভোজের আয়োজন সোনিয়ার

বিরোধীদের এককাট্টা করতে নৈশভোজের আয়োজন সোনিয়ার

বিরোধীদের একজোট করতে এবার নৈশভোজের আয়োজন করলেন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী। সেখানে প্রায় ১৭টি বিরোধী দলের নেতাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সে দলে তৃণমূলের তরফে থাকছেন সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়ও। আপাতত এই নৈশভোজ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে।

উল্লেখ্য, দেশের মোট ২১টি রাজ্যে শাসন করতে বিজেপি। তাই বিজেপির শক্তিবৃদ্ধিকে আটকাতে একজোট হতে হবে বিরোধীদের। কংগ্রেসের দায়িত্ব রাহুলের হাতে দেওয়ার পর গুজরাট নির্বাচনে দল খানিকটা চাঙ্গা হয়েছে। কিন্তু সাম্প্রতিককালে ত্রিপুরা ও মেঘালয়ের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল অন্য কথা বলছে। দেশের আঞ্চলিক বিরোধী দলগুলির সঙ্গে যে সম্পর্ক রেখে চলা উচিত তা তিনি করতে পারছেন না বলেই রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশের ধারণা। 

এদিনের নৈশভোজে উপস্থিত থাকবেন তৃণমূল সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়। থাকছেন ডিএমকে-র কানিমোঝি, সপা-র নেতা রাম গোপাল যাদব, সিপিআইএম-এর সীতারাম ইয়েচুরি, সিপিআই নেতা ডি রাজা প্রমুখ। আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বিএসপি নেত্রী মায়াবতীকেও। যদিও বিজেডি, টিআরএস-কে নৈশভোজে আমন্ত্রণ জানানো হয়নি বলেই সূত্রের খবর। একাধিক বর্ষীয়ান নেতার মতে, সোনিয়ার সঙ্গে যেভাবে রাজনৈতিক বিষয়ে কথা বলা যায়, অনেকের সময় রাহুলের সঙ্গে সেই মাত্রায় কথাবার্তা বলা সম্ভব হচ্ছে না। কোথাও একটা শূন্যস্থান তৈরি হচ্ছে। তা পূরণ করতেই নৈশভোজের ডাক সোনিয়ার।