অপসারিত অলোক ভার্মার বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট জমা পড়ল আদালতে, শুনানি পিছলো একদিন

অপসারিত অলোক ভার্মার বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট জমা পড়ল আদালতে, শুনানি পিছলো একদিন

সিবিআই অন্তর কলহ নিয়ে জল গড়িয়েছে আদালত পর্যন্ত। তবে এই ঘটনার বিচার প্রক্রিয়া পিছলো আরও একদিন। অলোক ভার্মার মামলার শুনানি আরও একদিন পিছিয়ে গেল কারণ সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনের রিপোর্ট দেরিতে জমা পড়েছে। আগামী শুক্রবার মামলার শুনানির দিন ধার্য হয়েছে বলে জানা গিয়েছে৷

আদালত সূত্রে খবর, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী অপসারিত সিবিআই প্রধান অলোক ভার্মার বিরুদ্ধে তদন্ত রিপোর্ট মুখ বন্ধ খামে জমা দেয় সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশন৷ কিন্তু, রবিবার এই রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা থাকলেও তা সম্ভব হয়নি৷ সোমবার আদালত শুরু হতেই সেন্ট্রাল ভিজিল্যান্স কমিশনের তরফে রিপোর্ট পেশ করা হয়৷ 

একদিন দেরিতে জমা পড়ে রিপোর্ট। বিষয়টি নিয়ে সুপ্রিম কোর্ট অসন্তোষ প্রকাশ করেছে।আর জানানো হয়েছে রিপোর্ট খতিয়ে না দেখে আদালত কোনওভাবেই গুরুত্বপূর্ণ মামলার শুনানি করবে না৷ একইসঙ্গে মামলার শুনানি পিছিয়ে শুক্রবার হবে বলে ঘোষণা করা হয়৷ 

সিবিআইয়ের অন্তর্বর্তী প্রধান পদে বসা নাগেশ্বর রাও পরবর্তী শুনানি না হওয়া পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন না বলেও আদালতের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়৷ এমনকী, অন্তর্বর্তী প্রধান পদে বসে নাগেশ্বর রাও যে আধিকারিকদের বদলি করেছেন, তাঁদের একটি তালিকা চেয়ে পাঠানো হয়েছে আদালতের তরফে৷

উল্লেখ্য, গত ২৪ অক্টোবর, সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেন অলোক ভার্মা৷ অলোক ভার্মার আইনজীবীদের দাবি, সিবিআই ডিরেক্টরের অপসারণ এই মুহূর্তে অনৈতিক। এতে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ মামলার তদন্তের ক্ষতি হবে। তাছাড়া ভার্মার কার্যকাল আর মাত্র ২ মাস। তাই এই অবস্থায় তাঁকে আইনি পথে অপসারণ করা সম্ভব নয়। ভার্মার আইনজীবীর অভিযোগ,''দেশের সর্বোচ্চ স্বশাসিত সংস্থার স্বয়ংক্রিয়তায় হস্তক্ষেপ করছে কেন্দ্র। কিছু কিছু তদন্তের গতিপ্রকৃতি এমন দিকে এগোচ্ছিল যা সরকারের পক্ষে সুখকর ছিল না।''