রাফালে সম্পর্কে নতুন তথ্য, আম্বানির সঙ্গে চুক্তিতে বাধ্য হয়েছিল দাসাল্ট!

রাফালে সম্পর্কে নতুন তথ্য, আম্বানির সঙ্গে চুক্তিতে বাধ্য হয়েছিল দাসাল্ট!

রাফালে নিয়ে এবার এক চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল। ফ্রান্সের একটি সংস্থার রিপোর্ট থেকেই এই তথ্য মিলেছে। ওই সংবাদ মাধ্যমের একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, দাসাল্ট নামের ফ্রান্সের যে সংস্থা রাফালে তৈরি করছে, সেই সংস্থাটিকে অফসেট পার্টনার হিসেবে রিলায়েন্সকে বেছে নিতে বাধ্য করা হয়েছে। 

সংবাদমাধ্যমটি দাবি করেছে, দাসাল্ট নামে সংস্থাটির সেকেন্ড-ইন-কম্যান্ড একথা তাদের জানিয়েছেন। এমনকি দাসাল্টের নথিতেও প্রমাণ রয়েছে তাঁরা বাধ্য হয়েই রিলায়েন্সকে পার্টনার হিসেবে বেছে নিয়েছেন। সংবাদমাধ্যমের দাবি, লোলিক সেগলেন ২০১৭ সালের ১১ মে প্রকাশ্যেই জানিয়েছিলেন, ৫৯ হাজার কোটি টাকার এই চুক্তিটি পাওয়ার জন্য তাদের কিছু শর্ত দেওয়া হয়েছিল। সেই শর্তে বলা হয়েছিল যে রিলায়েন্সকেই পার্টনার হিসেবে বেছে নিতে হবে তাদের। 

ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমটির দাবি, ফ্রান্সের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাদঁ যা বলেছিলেন সেটাই সত্যি। রিলায়েন্সকে বেছে নেওয়া ছাড়া আর কোনও অপশন ছিল না ফ্রান্সের কাছে। সংস্থাটির এক শীর্ষস্থানীয় সাংবাদিক জানিয়েছেন, আমরা আবারও বলছি ওলাদেঁর মন্তব্য পুরোপুরি সঠিক।তবে ফ্রান্স এর সংবাদমাধ্যমের এই রিপোর্টকে অস্বীকার করেছে দাসাল্ট। 
 
ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমের এই খবর জানাজানি হতেই বিজেপিকে আক্রমণ করতে শুরু করেছে বিরোধীরা। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেন, ফ্রান্সের সংবাদমাধ্যমের এই রিপোর্টেই প্রমাণিত হয়ে গেল নরেন্দ্র মোদী অনিল আম্বানির সংস্থার চৌকিদার। 

রাহুল বলেন, '' আমি আবারও বলছি প্রধানমন্ত্রী দুর্নীতিগ্রস্ত। আম্বানির সংস্থার মাথায় মোটা অঙ্কের ঋণ ছিল, সেই ঋণের ক্ষতিপূরণের জন্যই আম্বানিকে দিয়েছেন রাফালের বরাত।'' 

এদিকে, বুধবারই ফ্রান্সে গিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। দাসাল্টের ফ্যাক্টরি পর্যবেক্ষণ করবেন তিনি। রাহুল গান্ধী প্রশ্ন তুলেছেন, '' হঠাৎ করে কী এমন পরিস্থিতি তৈরি হল যে প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে ফ্রান্সে দৌড়তে হল। তিনি আবার দাসাল্টের সংস্থাতেই চলে গিয়েছেন।'' 

দাসাল্টের অভিযোগ অস্বীকার প্রসঙ্গে রাহুল বলেন,'' ফ্রান্সের সংস্থাটি ভারতের কাছ থেকে বড়সড় একটি বরাত পেয়েছে। তাই ভারত সরকার ওদের দিয়ে যা বলাতে চাইছে ওরাও তাই বলছে।''