৩০ বছর আগের একটি মামলায় জেলে যেতে হতে পারে নভজ্যোৎ সিংহ সিধু’কে

৩০ বছর আগের একটি মামলায় জেলে যেতে হতে পারে নভজ্যোৎ সিংহ সিধু’কে

৩০ বছর আগের একটি মামলার জেরে জেলে যেতে হতে পারে প্রাক্তন ক্রিকেটার ও পাঞ্জাবের পর্যটনমন্ত্রী নভজ্যোৎ সিংহ সিধুকে। ওই মামলায় সুপ্রিম কোর্টেই নামমাত্র জরিমানা হয়েছিল সিধুর। তবে এত বছর পর বুধবার তাঁকে শো-কজ নোটিশ পাঠিয়ে সুপ্রিম কোর্ট জানতে চেয়েছে, কেন তাঁর কড়া শাস্তি হবে না?

১৯৮৮-এর ২৭ ডিসেম্বর পাতিয়ালার রাস্তায় গাড়ি পার্কিংকে কেন্দ্র করে গুরনাম সিংহ নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন সিধু ও তাঁর বন্ধু রুপিন্দ্র সিংহ সান্ধু। অভিযোগ, গুরনামকে গাড়ি থেকে জোর করে টেনে বার করে মারধর করেন তাঁরা। ওই ঘটনার পর মারা যান গুরনাম।

ওই মামলায় দায়রা আদালতে ছাড়া পেয়ে গেলেও ২০০৬-এ পাঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের রায়ে অনিচ্ছাকৃত খুনের দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন সিধু। হাইকোর্টের রায়ে তাঁর তিন বছরের কারাদণ্ড হয়েছিল। কিন্তু, পরের বছর সেই রায়ের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন সিধু। মাস চারেক আগে সেই মামলার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি জে চেলমেশ্বর এবং বিচারপতি সঞ্জয় কিষান কলের বেঞ্চ। তাতে হাইকোর্টের ওই রায় বাতিল করে সিধুর এক হাজার টাকার জরিমানা হয়। এর পর অমৃতসর কেন্দ্র থেকে বিধানসভা নির্বাচনে জেতেন তিনি।

কিন্তু, সম্প্রতি সুপ্রিম কোর্টের ওই রায় পুনর্বিবেচনার আবেদন করে গুরনামের পরিবার। সেই আবেদনের ভিত্তিতে সিধুকে এই নোটিশ পাথাল সুপ্রিম কোর্ট।