ফুড ডেলিভারি অ্যাপে কম দামে খাবার কিনছেন? জেনে নিন কি বলছে খাদ্য সুরক্ষা দপ্তর

ফুড ডেলিভারি অ্যাপে কম দামে খাবার কিনছেন? জেনে নিন কি বলছে খাদ্য সুরক্ষা দপ্তর

ফুড ডেলিভারি অ্যাপে কম দামে খাবার পাচ্ছেন। আর অর্ডার করছেন। কিন্তু এই খাবার কতটা স্বাস্থ্যকর তা কি আমরা কখনও ভেবে দেখি? দেখি না। কিন্তু ভাবার বিষয় হল এত কম দামে কি করে খাবার বিক্রি করছে এই অ্যাপ গুলি। হতেই তো পারে যে, খাবারের মানের সাথে আপস করা হচ্ছে। ঠিক এমনটাই বলছে ‌ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন(‌এফডিএ)। 

এই সংস্থার করা একটি সমীক্ষায় সংস্থাটি জানিয়েছে, যে খাবারগুলি জোম্যাটো বা সুইগির মত অ্যাপগুলি কম দামে দিচ্ছে তার গুণগত মান মোটেও ভাল নয় এবং তা স্বাস্থ্যের পক্ষেও ক্ষতিকর।

এফডিএ সূত্রে জানা গিয়েছে, মুম্বইয়ের ১০০টি খাবারের দোকান যার সঙ্গে ফুড অ্যাপগুলির যোগ রয়েছে, তাদের খাদ্য সুরক্ষা আইনের অন্তর্গত কোনও বৈধ লাইসেন্স নেই। তার মানে খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতায় যে যে নির্দেশ রয়েছে সেইসব দোকানগুলি তা মানে না। এফডিএ ২১ সেপ্টেম্বর থেকে ১ অক্টোবর পর্যন্ত দশদিন ব্যাপী মুম্বইয়ের বিভিন্ন খাবারের দোকানে সমীক্ষা চালায়। সেই সমীক্ষায় দেখা যায়, ১১৩টি রেস্তোরাঁ অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকরভাবে খাবার তৈরি করে এবং সেই খাবারই ফুড অ্যাপের মাধ্যমে গ্রাহকের কাছে পৌঁছায়। সেই খাবারের গুণগত মানও ভাল নয়। খাবার যেখানে রান্না হচ্ছে সেই জায়গাটি পরিস্কার নয় এবং খাবারের মানের সাথেও আপস করা হচ্ছে। 

এফডিএর পক্ষ থেকে ওই ১১৩টি রেস্তোরাঁকে নোটিশ দেওয়া হয়েছে এবং দ্রুত ব্যবসা বন্ধ করতে বলা হয়েছে। এফডিএ এই রেস্তোরাঁগুলির বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করবে বলেও জানা গিয়েছে। এফডিএ জানিয়েছে, ১১৩টি রেস্তোরাঁর মালিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়েছে।