৫ রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবির ইঙ্গিত মিলেছে, বুথফেরত সমীক্ষা নিষিদ্ধ করল কমিশন

৫ রাজ্যে বিজেপির ভরাডুবির ইঙ্গিত মিলেছে, বুথফেরত সমীক্ষা নিষিদ্ধ করল কমিশন

পাঁচ রাজ্যে বুথফেরত সমীক্ষা নিষিদ্ধ করে দিল নির্বাচন কমিশন। অভিযোগ, জনমত সমীক্ষার নামে সাধারণ মানুষকে প্রভাবিত করকার চেষ্টা চলছে৷ তাই আগামী সোমবার থেকে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত বুথফেরত সমীক্ষা বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ নির্দেশিকা জারি করে কমিশনের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, যেহেতু পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনে বিনিষেধ কার্যকর রয়েছে, ফলে ভোটপর্ব না মেটা পর্যন্ত কোনও রকম বুথফেরত সমীক্ষা করা যাবে না৷ এমনকী, বুথফেরত সমীক্ষার পাশাপাশি ভোটের ৪৮ ঘণ্টা আগে থেকে নির্বাচনী কেন্দ্রগুলিতে জনমত সমীক্ষাও প্রকাশ কর যাবে না বলে জারি হয়েছে নির্দেশিকা৷ ‘রিপ্রেসেন্টেশন অফ পিপলস অ্যাক্ট’-এর অধীনে কমিশনের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া শনিবার স্পষ্ট করা হয়েছে৷

ছত্তিশগড়, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, তেলেঙ্গানা ও মিজোরামে ভোট শুরু হচ্ছে ১২ নভেম্বর থেকে শেষ হবে ৭ ডিসেম্বরে। সমস্ত রাজ্যে ভোটগণনা হবে ১১ ডিসেম্বর। ছত্তিশগড়ে প্রথম দফার ভোটপ্রচার শেষ হয়েছে শুক্রবার৷ ভোটের উত্তাপ বাড়তেই একাধিক সংবাদমাধ্যমের তরফেও শুরু হয়েছে বুথফেরত সমীক্ষা৷ 

এদিকে দেশের প্রথম শ্রেণির সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত জনমত সমীক্ষায় বিজেপি-র ভরাডুবি ইঙ্গিত মিলেছে৷ রাজস্থানে কংগ্রেস বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে চলেছে বলেও উঠে এসেছে জনমত সমীক্ষায়৷ মধ্যপ্রদেশেও কংগ্রেসের জয়ের ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে সমীক্ষায়। সি ভোটার নভেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহের এই সমীক্ষায় দাবি করেছে, তেলেঙ্গানাতেও কংগ্রেস-টিডিপি জোট গরিষ্ঠতা পাবে বলেও সমীক্ষায় উঠে এসেছে৷ ছত্তিশগড়ে বিজেপি ও কংগ্রেসের মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতার ইঙ্গিত দিয়ে ওই জনমত সমীক্ষা কিছুটা এগিয়ে রেখেছে বিজেপিকে৷

প্রশ্ন উঠেছে, কেন জনমত সমীক্ষার ফল প্রকাশ হওয়ার পরই কেন নিষেধাজ্ঞা জারি করল নির্বাচন কমিশন?