জামা মসজিদ আসলে যমুনা দেবীর মন্দির!

জামা মসজিদ আসলে যমুনা দেবীর মন্দির!

জামা মসজিদ নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য এক বিজেপ নেতার। কি বললেন তিনি? বিজেপি নেতা বিনয় কাটিয়া বললেন, জামা মসজিদ আসলে যমুনা দেবীর মন্দির। আজ বৃহস্পতিবার এমনই দাবি করেছেন তিনি। তার কথায়, ' মোঘল সম্রাটরা প্রায় ৬০০০ ঐতিহাসিক সৌধ ভেঙে গুঁড়িয়ে দেয়। দিল্লির জামা মসজিদ আসলে ছিল যমুনা দেবীর মন্দির, তাজমহল ছিল তেজো মহালয়া। ' 
তাঁর সংযোজন, মুসলিমরা দেশের বহু ঐতিহ্যশালী ইমারতকে ভেঙে ফেলেছে। কিন্তু হিন্দুরা রাম জন্মভূমি, কাশীর বাবা বিশ্বনাথের মন্দির বা মথুরায় শ্রীকৃষ্ণের জন্মভূমিকে মুসলিম শাসকদের অত্যাচার থেকে বাঁচিয়ে রাখতে সক্ষম হয়েছিল। আপাতত রাম জন্মভূমির দাবি থেকে যে বিজেপি কোনওমতেই সরে আসবে না, সেকথাও স্পষ্ট করেছেন বিজেপির এই বিতর্কিত নেতা।
কাটিয়ারের এই মন্তব্যের নিন্দা করেছেন অল ইন্ডিয়া ইমাম ফেডারেশনের প্রেসিডেন্ট ইমাম সাজিদ রশিদি। তাঁর দাবি, দেশে সাম্প্রদায়িকতার বিষ ছড়াচ্ছে বিজেপি। তিনি বলেন, ' এ দেশের রাজনৈতিক নেতাদের একাংশ জাতপাতের নাম মানুষের মনে ঘৃণার জন্ম দিয়ে তখত বাঁচানোর চেষ্টা করেন। ভারত কখনই হিন্দু রাষ্ট্র হতে পারে না কারণ এ দেশে বহু ধর্ম, বর্ণ ও সম্প্রদায়ের মানুষের বাস। ' 
ইমাম সাজিদ রশিদি আরও বলছেন, ' অযোধ্যা ইস্যু এখন মিটতে চলেছে। এবার কি তবে কাশী বা জামা মসজিদ নিয়েও বিজেপি দেশে বিদ্বেষের জন্ম দিতে চাইছে? ' কাটিয়ার অবশ্য কোনও সমালোচনায় কান দিতে নারাজ। সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের পক্ষে আইনজীবী কংগ্রেস নেতা কপিল সিব্বলকে নিশানা করে তাঁর পালটা বক্তব্য, ' রাম জন্মভূমিতে কংগ্রেস মসজিদ বানাতে চাইছে। কিন্তু আমরা সেটা কখনওই হতে দেব না। ' হুমকির সুরে কাটিয়ার বলেছেন, কংগ্রেস যদি অযোধ্যায় মসজিদ চায়, তাহলে পালটা বিজেপিও আরও ৬ হাজার জায়গায় হিন্দুদের একচ্ছত্র দাবি কায়েম করবে।