অ্যাসিডিটি হলে কি করবেন?

অ্যাসিডিটি হলে কি করবেন?

পাকস্থলী থেকে তৈরি অ্যাসিড বা অম্ল উপরের দিকে উঠে এলে অ্যাসিডিটির সমস্যা দেখা দেয়। তখন হঠাৎ হঠাৎ গলা বা বুক জ্বলতে থাকা, মুখে টক ভাব, জিভ তেঁতো লাগা- এই সমস্যা গুলো বুঝতে পারেন আপনি। কিন্তু কয়েকটি অভ্যেস রয়েছে যা এগুলি থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে। দেখে নিন সেগুলি :

১. কিছু কিছু খাবার অ্যাসিডিটির সমস্যা বাড়ায়। যেমন ফ্যাটজাতীয় খাবার, মশলাদার খাবার, বেশি পেঁয়াজ, রসুন, পুদিনা, চা–কফি, চকোলেট। বুক জ্বালার সমস্যা থাকলে এইধরণের খাবার এড়িয়ে চলাই উচিত। 

২. ভরপেট খেলে এই সমস্যা বেশি হয়। যাদের অ্যাসিডিটির সমস্যা আছে, তারা সারাদিনে অল্প অল্প পরিমাণে খেতে পারেন। পেট খানিকটা খালি রেখেই খান। তাহলে খাবার তাড়াতাড়ি হজম হবে। খাওয়ার সময় তাড়াহুড়ো না করে ধীরেসুস্থে ভাল করে চিবিয়ে খাওয়ার অভ্যেস করুন। 

৩. নানা ধরণের ওষুধ খেলেও অ্যাসিডিটির সমস্যা হতে পারে। ব্যথা কমানোর ওষুধে সমস্যা বাড়তে পারে। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ খাওয়াই ভাল। 

৪. খেয়েই শুয়ে পড়বেন না। খাওয়ার পরপরই চিৎ হয়ে শুয়ে পড়লে অ্যাসিড উপরের দিকে ঠেলে উঠতে পারে। ঘুমানোর অন্তত তিন ঘণ্টা আগে রাতের খাবার খেয়ে নিন। ততক্ষণে খাবার হজম হয়ে যাবে। আর একটা কথা, খাওয়ার পর একটু হাঁটাচলা করুন। 

৫. খাওয়ার পর ভারী কাজ বা পরিশ্রম না করাই ভাল। হালকা হাঁটাহাঁটি চলতে পারে। কিন্তু ভারী ব্যায়াম একদমই নয়। 

৬. অ্যাসিডিট কমাতে অনেকে বোতলবন্দী কার্বনেটেড পানীয় খান। এতে অ্যাসিডিটি সাময়িক কমে। তবে এই ধরণের পানীয় থেকে ভবিষ্যতে আরও অ্যাসিডিটি হতে পারে। 

৭. সকালে উঠে একটু হাঁটাহাঁটি বা যোগব্যায়াম করুন। আপনার হজমশক্তি বৃদ্ধি পাবে। হয়তো চটজলদি এই সমস্যা থেকে রেহাই পাবেন না। কিন্তু এই অভ্যেস জারি থাকলে ধীরে ধীরে অ্যাসিডিটি থেকে রেহাই পাবেন।