চার বছরের শিশুর পেট থেকে বেরোলো ২০৩ টি কুলের বীজ, নাট বল্টু, কাপড়!‌

চার বছরের শিশুর পেট থেকে বেরোলো ২০৩ টি কুলের বীজ, নাট বল্টু, কাপড়!‌

পেটের মধ্যে রয়েছে ২০৩টি কুলের বীজ! তবে শুধু কুলের বীজ নয়, রয়েছে নাটবল্টুও। ঘটনাটি ঘটেছে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। শনিবার অস্ত্রোপচার করে চার বছরের ওই শিশুর শরীর থেকে সেগুলি বের করেন চিকিত্সকেরা। এমনকি পেটের মধ্যে কাপড়ের টুকরো ও মাটিও পেয়েছেন চিকিত্সকেরা।
 
জীবন রুইদাস নামে ওই শিশুটি হুগলির আরামবাগের বাসিন্দা। জানা গিয়েছে, গত তিন-চারমাস ধরে শিশুটির পেটে অসহ্য ব্যাথা শুরু হয়। খাবার খেতে ও মলত্যাগ করতে সমস্যা হত। এরপর শিশুটির অভিভাবক আরামবাগের এক স্থানীয় চিকিৎসককে দেখান। ওই চিকিৎসক পেটের এক্স-রে করার পরও কিছু বুঝতে না পেরে তাঁদের বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন। গত ১৪ আগস্ট চার বছরের শিশুটির মা-বাবা তাকে নিয়ে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের বর্হিবিভাগের ডাঃ নরেন্দ্রনাথ মুখোপাধ্যায়কে দেখান।

তিনি শিশুটিকে পরীক্ষা করে বুঝতে পারেন যে তার পেটে ও খাদ্যনালীতে ভারী কিছু ঢুকে রয়েছে। ওই চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে ১০ জনের চিকিৎসকের দল গঠন করে শনিবার অস্ত্রোপচার করা হয়। 

অস্ত্রোপচারের পরই শিশুটির পেট থেকে ২০৩টি কুলের বীজ সহ একটি নাটবল্টু বের হয়। ঘটনায় রীতিমত চমকে গেছেন চিকিত্সকেরা। শিশুটির পরিবার জানিয়েছে, তাঁদের বাড়ির পাশেই একটি কুলগাছ রয়েছে, সেই গাছের নীচে পড়ে থাকা কুল বীজসহ শিশুটি খেয়ে নিত হয়তো। কিন্তু নাটবল্টু কিভাবে এলো পেটের মধ্যে তা নিয়ে পরিবার কিছু বলতে পারেনি।