চলতি মাসের 25 তারিখেই মুক্তি পেতে চলেছে পদ্মাবতী

চলতি মাসের 25 তারিখেই মুক্তি পেতে চলেছে পদ্মাবতী

অবশেষে জল্পনার অবসান হল। বেশ কিছুদিন ধরেই ২৫ জানুয়ারি পদ্মাবত মুক্তির বিষয়টি নিয়ে চর্চা চলছিল। আজ তাতে সিলমোহর দিল ছবির প্রযোজনা সংস্থা।

 

বহু প্রতীক্ষিত এবং চর্চিত এই ছবির মুক্তির দিন নিয়ে ইতিমধ্যে শুরু হয়েছে নয়া জল্পনা৷ কারণ, ওইদিনই অক্ষয় কুমারের ‘প্যাডমান’ এবং নীরজ পান্ডের ‘আইয়ারি’ও মুক্তি পেতে চলেছে৷ ফলে নতুন বছরের শুরুতেই বক্সঅফিসে বড়সড় ধামাকা আসতে চলেছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না৷ যদিও নীরজ পান্ডে তাঁর আইয়ারি ছবি মুক্তির দিন পিছিয়ে ফেব্রুয়ারিতে নিয়ে যাওয়ার কথা ভাবছেন, তবে অক্ষয় কুমারের কাছে আর কোনও সুযোগ আপাতত নেই। কারণ, সারা ভারতের মোট ৫৫০০ স্ক্রিনের মধ্যে এখনই প্যাডমানের প্রযোজক ১৫০০ স্ক্রিন বুক করে ফেলেছেন৷

সম্প্রতি, কট্টরপন্থী সংগঠনের সভাপতি সুখদেব সিংহ গোগামেদি হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ‘পদ্মাবত’ মুক্তি পেলে তার যে ফল হবে, সেটার জন্য দায়ী থাকবে সেন্সর বোর্ড ও বিজেপি সরকার। অন্য দিকে, করণী সেনার সদস্য লোকেন্দ্র সিংহ কালভি বলেন ‘আগামী ২৭ জানুয়ারি রাজপুত কমিউনিটির সদস্যরা চিতোরগড়ে একটি জমায়েতে অংশ নেবেন। সেখানে রানি পদ্মিণীর স্বার্থত্যাগ সম্পর্কে স্পষ্ট বার্তা দেওয়া হবে। তাঁর আত্মত্যাগ বৃথা হতে পারে না।’ তাঁর আহ্বান, ‘যাঁরা এই ছবিটি নিষিদ্ধ করার জন্য আমাদের সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত, সকলে ওই দিন চিতোরগড়ে আসতে পারেন

 

২৮ ডিসেম্বর মেবারের রাজপরিবার ও দুই রাজস্থানী ঐতিহাসিক-সহ সিবিএফসি-র বিশেষ প্যানেল ছবিটি দেখে। তারাই সিবিএফসিকে বেশ কয়েকটি শর্তে ছবি মুক্তির পক্ষে সায় দেয়।