নানা পাটেকরকে আইনি নোটিশ মহিলা কমিশনের

নানা পাটেকরকে আইনি নোটিশ মহিলা কমিশনের

অভিনেত্রী তনুশ্রীর কথা অনুযায়ী, নানা পাটেকর সহ বেশ কয়েকজনকে আইনি নোটিস পাঠিয়েছে মহারাষ্ট্র মহিলা কমিশন। নানা পাটেকর ছাড়াও কোরিওগ্রাফার গণেশ আচারিয়া, রাকেশ সরংকে নোটিস পাঠিয়েছে কমিশন। শুধু অভিযুক্ত পাটেকরদেরই নোটিস পাঠানো হয়নি, পাশাপাশ তনুশ্রী দত্তের অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিনেত্রীকেও মহিলা কমিশনের দফতরে ডেকে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় বয়ান রেকর্ডের জন্যই ডেকে পাঠানো হয়েছে তনুশ্রীকে। ফেসবুকে একটি পোস্ট শেয়ার করে তিনি বলেন, ২০০৭ সালে তিনি এবং প্রযোজক গৌরাঙ্গ দোশি একে অপরকে ডেট করতেন। সেই সময় গৌরাঙ্গ তাঁকে হেনস্থা করেন বলে অভিযোগ তুলেছেন ফ্লোরা। শারীরিক অত্য়াচারও চালানো হয়। মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন ফ্লোরা। তাঁকে হুমকিও দেওয়া হয় যে তিনি কোনওভাবেই আর ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করতে পারবেন না। তবে তিনি কুর্নিশ জানিয়েছেন সেই সব মহিলাদের যাঁরা চিরাচরিত প্রথা ভেঙে বেরিয়ে এসে  শারীরিক হেনস্থার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন।


অন্যদিকে , তনুশ্রীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে নানা পাটেকর ও ফিল্মের পরিচালক তনুশ্রীকে আইনি নোটিস পাঠান। এরপরই মহিলা কমিশনের দ্বারস্থ হন তনুশ্রী।

তনুশ্রীর দেখানো পথেই হেঁটেছেন কঙ্গনা, ফ্লোরা সাইনি, বিনতা নন্দার মতো তারকারা। ইতিমধ্যেই কুইনের পরিচালক বিকাশ বহলের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। মুখ খোলার পর থেকেই বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না তনুশ্রীর। বলিউডের একাংশই তাঁর পক্ষ নিয়ে সরব হয়েছেন। যদিও নানা এই অভিযোগ অস্বীকার করে গেছেন।