দ্য লাস্ট ইয়ারের দশ বছর পূর্তিতে ঋতুপর্ণ ঘোষের স্মৃতিচারনা করলেন অমিতাভ

দ্য লাস্ট ইয়ারের দশ বছর পূর্তিতে ঋতুপর্ণ ঘোষের স্মৃতিচারনা করলেন অমিতাভ

লাস্ট ইয়ার ছবির মুক্তি পেয়েছিল দশ বছর আগে আজকের দিনেই,অভিনয় করেছিলেন বিগ বি,দশ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ঋতুপর্ণ সেনের স্মৃতিচারনা করলেন অমিতাভ বচ্চন,বিগ বির মন্তব্য, সত্যজিত রায় পরবর্তী সময়ের অন্যতম বহুমুখী প্রতিভাধর পরিচালকের একজন ছিলেন ঋতুপর্ণ। কিন্তু খুব অল্প দিনই তাঁর ছত্রছায়ায় থাকতে পারল ছবির দুনিয়া। তিনি আমাদের খুব তাড়াতাড়ি ছেড়ে চলে গেলেন, আক্ষেপ অমিতাভের।

গতকাল অমিতাভ টুইটারে লেখেন, “দা লাস্ট লিয়ারের ১০ বছর। আইকনিক ঋতুপর্ণ ঘোষ পরিচালিত আমার প্রথম ইংরেজি ছবি। খুব তাড়়াতাড়ি আমাদের ছেড়ে গেল ঋতু।”  বাঙালি পরিচালক সুজয় ঘোষ ও সুজিত সরকারের সঙ্গে কাজ করেছেন অমিতাভ। কিন্তু ঋতুপর্ণ ঘোষের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ আলাদা। এর আগেও বারবার তাঁর কাজের প্রশংসা করেছেন অমিতাভ।

বাংলা ছবিতে অন্য ধারা এনেছিলেন ঋতুপর্ণ।  ২০০৪ সালে হিন্দি ছবি “রেনকোট” জাতীয় পুরস্কার পেয়েছে। ২০১২ সালে আরও একটি হিন্দি ছবি করেন। নাম “সানগ্লাস”। তাঁর পরিচালিত বাংলা ছবি “বাড়িওয়ালি”, “উৎসব”, “অসুখ”, “চোখের বালি”, “দোসর”, “সব চরিত্র কাল্পনিক”, “আবহমান”, “চিত্রাঙ্গদা”। শেষ ছবি “সত্যান্বেষী”।

২০১৩ সালে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় ঋতুপর্ণ ঘোষের। এই চলচ্চিত্রকার। ২০০৪ সালে মুক্তি পেয়েছিল ‘রেনকোট’ এবং ২০১২ সালে ‘সানগ্লাস’।