ফেরও মামলার গেরোয় আটকে এসএসসি

ফেরও মামলার গেরোয় আটকে এসএসসি

ফের মামলার জটে আটকে গেল রাজ্যের শিক্ষক নিয়োগ। এসএসসি-র নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে আবারও তোপ দাগল হাইকোর্ট। দীর্ঘদিনের মামলার জট কাটিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়ায় উদ্যোগী হয়েছিল এসএসসি। তখনই কলকাতা হাইকোর্টে দায়ের হল মামলা।

উচ্চমাধ্যমিক স্তরে শিক্ষক নিয়োগে মেধাতালিকা প্রকাশ নিয়ে আদালতে চুড়ান্ত সমালোচিত হল স্কুল সার্ভিস কমিশন ৷ আদালতে এদিন বিচারপতি এসবি শরাফ মেধাতালিকা প্রকাশ নিয়ে কমিশনের কাছে কৈফিয়ত তলব করেন ৷ স্কুল সার্ভিস কমিশনের কাছে আদালতের প্রশ্ন, ‘এসএসসি উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মেধাতালিকা কি প্রকাশ করা হয়েছিল? না হলে উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের প্যানেল প্রকাশ না করেই কিভাবে কাউন্সেলিংয়ের তারিখ ধার্য করা হল?’ বিচারপতি এসবি শরাফ আগামীকাল অর্থাৎ বৃহস্পতিবার ১২ জুলাই সকাল সাড়ে দশটার মধ্যে মেধাতালিকা সংক্রান্ত হাইকোর্টের প্রশ্নের জবাব দিতে নির্দেশ দেন কমিশনকে ৷

মামলাকারীর বক্তব্য, উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করা হোক ৷ একইসঙ্গে পিডিএফ ফর্ম্যাটে সমস্ত প্রার্থীর নাম এসএসসি-এর অফিসিয়াল সাইটে প্রকাশের দাবি করেছেন নিয়োগপ্রার্থী বিশ্বজিৎ পাল ৷ এবিষয়ে মামলাকারী তরফে হাইকোর্টের যুক্তি, ২০১৩ সালে শিক্ষক নিয়োগের মেধাতালিকা প্রকাশ করে এসএসসি ৷ তাহলে ২০১৮ সালে মেধাতালিকা প্রকাশ নয় কেন?

কাউন্সেলিংয়ের জন্য গত ৬ জুলাই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন। সেই বিজ্ঞপ্তিকে চ্যালেঞ্জ করেই এক চাকরিপ্রার্থী কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন। মামলকারীর দাবি, উত্তীর্ণ পরীক্ষার্থীদের সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করুক কমিশন।