অনিয়মিত হাজিরা,শোকজ শিক্ষকরা

অনিয়মিত হাজিরা,শোকজ শিক্ষকরা

স্কুলে অনিয়মিত আসেন শিক্ষকরা,প্রতিনিয়তই এই ঘটনা ঘটে চলেছে,বুধবার রায়গঞ্জ শহরের সুদর্শনপুরের চারুবালা প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে যান জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক মৃন্ময় ঘোষ। তাঁর সঙ্গে ছিলেন দপ্তরের আরও এক আধিকারিক। দুপুর দেড়টা নাগাদ ওই স্কুলে গিয়ে পৌঁছন তাঁরা। দেখেন, স্কুলে চারজনের মধ্যে দু’জন শিক্ষক উপস্থিত রয়েছেন। একজন ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজে অন্যত্র ডিউটি করছেন। অন্য এক শিক্ষক ছুটি হওয়ার দু’ঘণ্টা আগে স্কুল থেকে চলে গেছেন। এ ব্যাপারে প্রধান শিক্ষক পারমিতা সেনগুপ্তকে প্রশ্ন করা হলে তিনি সদুত্তর দিতে পারেননি। এরপর জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক অনুপস্থিত শিক্ষিকা পপি কুণ্ডুকে শোকজ় করেন।প্রাথমিক শিক্ষার মানোন্নয়ন, শিক্ষকদের নিয়মিত হাজিরা সহ একাধিক বিষয় নিয়ে গত ডিসেম্বর মাসজুড়ে প্রাথমিক শিক্ষকদের নিয়ে আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত শিক্ষকদের উপর নতুন করে চাপ বাড়াতে জেলাজুড়ে স্কুল পরিদর্শন শুরু করেছেন জেলা বিদ্যালয় পরিদর্শক।মৃন্ময় ঘোষ জানিয়েছেন, “এই অনিয়মিত শিক্ষকদের শোকজ করা হয়েছে এবং এক মাসের মধ্যে জবাব চাওয়াও হয়েছে, উত্তর সন্তোষজনক না হলে তাঁদের বিরুদ্ধে দপ্তরের আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”এ বিষয়ে নিখিলবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির জেলা সম্পাদক কৃষ্ণেন্দু রায়চৌধুরী জানিয়েছেন, “প্রাথমিক শিক্ষাদপ্তরের উদ্যোগকে আমরা সংগঠনগতভাবে স্বাগত জানাচ্ছি। তবে এই অভিযান যেন নিরপেক্ষভাবে করা হয় সেটাও দেখতে হবে।”