স্কুলের শৌচালয়ে  আত্মঘাতী ছাত্র

স্কুলের শৌচালয়ে  আত্মঘাতী ছাত্র

স্কুলের সৌচালয়ের মধ্যে নিজের মাথায় বন্দুকের গুলি করে আত্মঘাতী দশম শ্রেনীর ছাত্র, মৃত ছাত্রের নাম কলিম শেখ। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে।চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে বর্ধমানের কেতুগ্রামে। কেতুগ্রামের দধিয়া গোপালদাস হাইস্কুলের মধ্যে গুলিবিদ্ধ হয়ে ছাত্রের মৃত্যু ঘটনা ঘটল। কেতুগ্রামেরই রতনপুরের বাসিন্দা ওই ছাত্রের হাতে কী করে পিস্তল এল। এবং কেনই বা সে স্কুলে ক্লাসের ফাঁকে বাথরুমে গিয়ে নিজের মাথায় গুলি চালাল, তা স্পষ্ট নয়। পুলিশ এই ঘচনার তদন্ত শুরু করেছে। প্রতিদিনের মতো সময়েই স্কুলে এসেছিল কলিম। ক্লাসের মাঝে কলিম শৌচালয়ে যায়। তারপর শৌচালয়ের ভিতরে গিয়ে নিজের মাথায় গুলি চালিয়ে দেয়। সঙ্গে সঙ্গে লুটিয়ে পড়ে কলিম। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বিবরণ থেকে জানা গিয়েছে, হঠাত্ই স্কুলের মধ্যে গুলির আওয়াজ শোনা যায়। আওয়াজটা শৌচালয়ের দিক থেকে আসছে বুঝতে পেরে সবাই সেদিকে ছুটে যান। দশম শ্রেণির ছাত্রের কাছে বন্দুক কোথা থেকে এল, সেই প্রশ্ন-ই ভাবাচ্ছে সবাইকে। শুধুমাত্র আক্রোশ বশে আত্মহত্যা নাকি এর পিছনে প্রেমঘটিত কোনও কারণ রয়েছে, তা জানতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিস।