আড়াই বছরের শিশুকে মাথা ফাটাল স্পিচ থেরাপিস্ট

আড়াই বছরের শিশুকে মাথা ফাটাল স্পিচ থেরাপিস্ট

আড়াই বছরের শিশুকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার মহিলা।বুকের ওপর বসে চলল বেধড়ক মার। মর্মান্তিক এঘটনা খাস কলকাতার আনোয়ার শাহ রোডের। অভিযোগের ভিত্তিতে থেরাপিস্ট চৈতালি মুখার্জিকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

বয়স আড়াই। কিন্তু, এখনও স্পষ্ট কথা ফোটেনি। আড়াই বছরের ছেলেকে তাই স্পিচ ক্লাসে ভর্তি করেছিলেন কথাকলি মালাকার।

সাত-ই  মে প্রথম ক্লাস। কোনও সমস্যা হয়নি সেদিন। সমস্যা বাধে দ্বিতীয় দিন।  ১৪ মে।  সেদিন প্রথম থেকেই ক্লাস করতে চাইছিল না শিশুটি। ভয় পাচ্ছিল। সেদিন শিশুটিকে তিনতলায় নিজের ঘরে ডেকে পাঠান সংস্থার স্পেশাল এডুকেটর। ঘরের বাইরে ছিলেন বাবা, মা ।  ভিতর থেকে হঠাৎ ছেলের কান্নার শব্দ পান। দেখেন, একজন ওষুধ নিয়ে ক্লাসে ঢুকছেন। সন্দেহ হওয়ায় জোর করে ভিতরে ঢুকে হতবাক মা।

 

 একমাত্র সন্তানকে রক্তাক্ত দেখে মাথা ঠিক রাখতে পারেননি কথাকলি। চারু মার্কেট থানায় সেন্টারের বিরুদ্ধে এফআইআর করেন। থানা থেকে সেন্টারের সিসিটিভি ফুটেজ চেয়ে পাঠানো হয়। সেই ফুটেজ দেখে শিউড়ে ওঠেন কথাকলি।

অভিযুক্ত থেরাপিস্ট চৈতালি মুখার্জিকে ইতিমধ্যেই গ্রেফতার করেছে পুলিস। কিন্তু,তাতে  সম্তুষ্ট নন কথাকলি।