বাড়িতে মদের আসর, ভাড়াটে সঙ্গে বচসার জেরে মালিককে ধারালো অস্ত্রের কোপ

বাড়িতে মদের আসর, ভাড়াটে সঙ্গে বচসার জেরে মালিককে ধারালো অস্ত্রের কোপ

প্রতিদিন বাড়িতে মদের আসর বসাত ভাড়াটে। গভীর রাত পর্যন্ত চলত হুল্লোড়। প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধ বাড়িওয়ালা ও তাঁর স্ত্রীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠল ভাড়াটের বিরুদ্ধে। বালিগঞ্জের দেওধর স্ট্রিটের ঘটনায় অভিযুক্ত সতীশকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযোগ, মদ্যপ অবস্থায় এর আগেও বৃদ্ধ দম্পতিকে মারধর করে সতীশ।

বাড়ির ভিতর জায়গা নিয়ে গন্ডগোল। গন্ডগোলের সময় বৃদ্ধ দম্পতিকে ধারালো অস্ত্রের কোপ বসিয়ে দিল ভাড়াটিয়া। বুক, পেটে আঘাত নিয়ে হাসপাতালে ভরতি করতে হয় প্রবীণ দম্পতিকে। সম্পত্তি নিয়ে পারিবারিক বিরোধের জেরেই এই ঘটনা বলে অভিযোগ

 

অভিযোগ, প্রায়দিনই মদ খেয়ে এসে ঝামেলা করত। টাকা-পয়সা চাইত ভোলার থেকে। আজ সকালেও মদ খেয়ে ঝামেলা শুরু করে। বাকবিতণ্ডা চলাকালীন অস্ত্র দিয়ে দাদা-বউদিকে আঘাত করে। গুরুতর আহত হন দু’জনে। 
 
আহত অবস্থায় প্রথমে তাঁদের কলকাতা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাঁদের বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। আপাতত সেখানেই চিকিৎসাধীন তাঁরা।বুধবার সকালে এর প্রতিবাদ করেন বৃদ্ধ ভাড়াটিয়া ভোলা প্রসাদ। অভিযোগ, তখনই তাঁর ওপর ধারালো অস্ত্র নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে সতীশ। এলোপাথাড়ি কোপাতে থাকে তাঁকে। বাধা দিতে গিয়ে আক্রান্ত হন ভোলা প্রসাদের স্ত্রী শীলা।