আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে মাদক পাচারের ঘটনায গ্রেফতার জেলের চিকিত্সক

আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে মাদক পাচারের ঘটনায গ্রেফতার জেলের চিকিত্সক

মদ, মাদক ও মোবাইল সহ আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে ঢুকতে গিয়ে হাতেনাতে পাকড়াও হলেন জেলেরই চিকিৎসক অমিতাভ চৌধুরী। অভিযুক্ত চিকিৎসককে গ্রেফতার করেছে আলিপুর থানার পুলিশ।

ঘটনার পরই আলিপুর সংশোধনাগার কর্তৃপক্ষ ঘটনাটি আলিপুর থানার হাতে সঁপে দেয়। পুলিশ তদন্তে নেমে প্রথমেই চিকিৎসককে হেফাজতে নেয়। জানা গিয়েছে, গত দশবছর ধরে জেলে চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করছিলেন অমিতাভ চৌধুরী। তিনি যে এমন কাজ করছেন তা কেউ ঘূণাক্ষরেও টের পাননি।

চিকিৎসক হওয়ায় অবাধে চেকিং ছাড়াই তিনি যাতায়াত করতেন। কেউ তাকে সন্দেহ করেনি। তবে শুক্রবার কারা কর্তৃপক্ষ হাতেনাতে তাকে ধরে ফেলেন। চিকিৎসকের ব্যাগ থেকে ১.৩৪ লক্ষ টাকা ও ৩৫টি মোবাইল উদ্ধার হয়।

জানা গিয়েছে, জেলবন্দিদের হাতে মোবাইল, মাদক, টাকা থেকে শুরু করে নানাবিধ সামগ্রী নিয়ম ভেঙে সাপ্লাই করতেন তিনি। এই কাজে কারা বিভাগের কারা তাকে সাহায্য করত সেটাই এখন খুঁজে বের করার চেষ্টা করছে পুলিশ।

আলিপুর জেলে অতীতে বন্দি পালানোর পরে সেল তল্লাশিতে অনেক মোবাইল উদ্ধার হয়। সেই ঘটনায় কারা রক্ষীরাই সন্দেহের তালিকায় ছিলেন। তবে এবার চিকিৎসকের খোঁজ মেলায় তাজ্জব বনে গিয়েছেন আধিকারিকেরা।

এই চক্রে জেল কর্মীদের একাংশ ও পুরনো বন্দিরা জড়িত বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান করা হচ্ছে।