সেবি’র নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আইনি পথে হাঁটতে চায় পিডব্লিউসি

সেবি’র নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আইনি পথে হাঁটতে চায় পিডব্লিউসি

সেবি'র নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানাতে আইনি পথে হাঁটার ইঙ্গিত দিল অডিট ও উপদেষ্টা সংস্থা প্রাইসওয়াটারহাউস কুপার্স (পিডব্লিউসি)। শেয়ার বাজার নিয়ন্ত্রকের নির্দেশ কার্যকর হওয়ার আগেই তার উপর স্থগিতাদেশ চায় তারা। একই সঙ্গে, তাদের দাবি, সত্যম কাণ্ডে ইচ্ছে করে হিসেব পরীক্ষায় গড়মিল করেনি তারা। ওই ভুল অনিচ্ছাকৃত। উল্লেখ্য, হালে আধারের অডিটেও যুক্ত তারা।
২০০৯ সালে সামনে আসা সত্যম কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িয়ে যাওয়ার খেসারত হিসেবে বুধবারই পিডব্লিউসির উপর দু’বছরের জন্য নিষেধাজ্ঞা চাপিয়েছে সেবি। জানিয়েছে, এই সময়ের মধ্যে ভারতের শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত কোনও সংস্থাকে অডিট (হিসেব পরীক্ষা) শংসাপত্র দিতে পারবে না তারা। সেই সঙ্গে, অন্যায় ভাবে ওই সূত্রে করা ১৩ কোটি টাকা মুনাফা ফেরানোরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে ওই সংস্থা ও দুই প্রাক্তন অডিটরকে।
অনেকের ধারণা, এতে অডিট ও উপদেষ্টা সংস্থাটির ব্যবসা বেশ কিছুটা ধাক্কা খাওয়ার সম্ভাবনা। এ দেশে টাটা স্টিল, পিরামল এন্টারপ্রাইজেস সহ শেয়ার বাজারে নথিভুক্ত ৭৫টি সংস্থা তাদের ক্লায়েন্ট। আশঙ্কা, সেবির এই ঘোষণায় সেই ব্যবসার একটি বড় অংশ দীর্ঘ মেয়াদে হারাতে পারে তারা।
তবে কলকাতায় পিডব্লিউসির ব্যবসায় আঁচ পড়ার সম্ভাবনা কম বলে ধারণা সংশ্লিষ্ট মহলের। যুক্তি, সেবির নিয়মের আওতায় পিডব্লিউসি পড়ে না। সে ক্ষেত্রে আদালতে যাওয়ার রাস্তা আছে। তা ছাড়া, এখানে গ্লোবাল ডেলিভারি সেন্টার মূলত কাজ করে বিভিন্ন বহুজাতিকের জন্য। সেবির নিয়মে তা আটকাবে না।