‌দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধিতে চিনকেও ছাপিয়ে যেতে পারে ভারত, বলছে আইএমএফ রিপোর্ট

‌দেশের অর্থনৈতিক বৃদ্ধিতে চিনকেও ছাপিয়ে যেতে পারে ভারত, বলছে আইএমএফ রিপোর্ট

ভারতের অর্থনীতি নিয়ে আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিলের(আইএমএফ) রিপোর্ট আশার কথা শোনাল। কি বলা হয়েছে ওই রিপোর্টে? চলতি বছরের শেষে দেশের আর্থিক বৃদ্ধির হার হতে পারে ৭.‌৩ শতাংশ। আগামী বছর বৃদ্ধির হার হতে পারে ৭.‌৪ শতাংশ। আজ মঙ্গলবার তাদের নতুন প্রকাশিত রিপোর্টে এই ইঙ্গিত দিয়েছে আন্তর্জাতিক অর্থ তহবিল বা আইএমএফ। 

গত বছর বৃদ্ধির হার ছিল সেখানে ৬.‌৭ শতাংশ। ক্রমাগত বেড়ে চলা পেট্রোপণ্য, নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির মধ্যেও এই খবরে স্বভাবতই আশার আলো দেখছেন অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আইএমএফ-এর ওয়র্ল্ড ইকোনমিক আইটলুক বা ডব্লুইও-র রিপোর্ট বলছে, নোট বাতিল, জিএসটি, বড় অঙ্কের বিনিয়োগ এবং ব্যক্তিগত সংরক্ষণের ফলেই এই বৃদ্ধি। 

এছাড়াও ওই রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে, ভারতে পরিকাঠামোগত সংস্কারের ফলে মিডিয়াম টার্ম বৃদ্ধি ৭.‌৭৫ শতাংশের মধ্যে ঘোরাফেরা করছে। শুধু গত এপ্রিলে বাজারের ঘাটতি হয়েছিল ০.‌৫ শতাংশ। তবে এই হারে আর্থিক বৃদ্ধি হলে, ২০১৮–র মধ্যে ০.‌৭ শতাংশ এবং ২০১৯–এ ১.‌২ শতাংশ বৃদ্ধি হয়ে আগামী বছরের মধ্যেই চীনকে ছাড়িয়ে দ্রুততম হারে আর্থিক বৃদ্ধি হওয়া দেশের তকমা ফিরে পাবে ভারত। 

কারণ ২০১৮ সালের শেষে চীনের বৃদ্ধির হার দাঁড়াচ্ছে ৬.‌৬ শতাংশ এবং ২০১৯ সালে তা হবে ৬.‌২ শতাংশ। আমেরিকার বৃদ্ধির হার ২০১৮- র শেষে হচ্ছে ২.‌৯ এবং ২০১৯ সালে হবে ২.‌৫ শতাংশ।