মঙ্গলবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাটে গুলিবিদ্ধ ৬, অভিযুক্ত তৃণমূল

মঙ্গলবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাটে গুলিবিদ্ধ ৬, অভিযুক্ত তৃণমূল

ভোট পরবর্তী হিংসায় উত্তপ্ত হল দক্ষিণ ২৪ পরগনার মগরাহাট থানা এলাকার জুগদিয়া গ্রাম। সেখানে কংগ্রেস এবং সিপিএম জোটের মোট ছ’জন গুলিবিদ্ধ হয়। এই ঘটনায় অভিযুক্ত তৃণমূল। শাসক দলের আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই গুলি চালিয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের।

ঘটনাটি ঘটেছে ভোটের পরদিন মঙ্গলবার রাতে। স্থানীয় সূত্রে খবর, গুলিবিদ্ধ ছ’জনের মধ্যে তিন জনকে গতকাল রাতেই এনআরএস হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। বছর চল্লিশের জিয়াউল মোল্লা, আখতার হুসেন মোল্লা এবং পঁয়ত্রিশ বছরের মণিরুল গাজি নামের ওই তিন জন এই মুহূর্তে এনআরএসে চিকিৎসাধীন। তাঁদের কারও হাতে, কারও দুই পায়ে, কারও বা আবার গলায় গুলি লেগেছে বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। এঁদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসাধীন মণিরুল। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, মণিরুলের গলায় গুলি লেগেছে।

পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গতকাল সন্ধ্যা সা়ড়ে ৬টা নাগাদ মগরাহাটের জুগদিয়া গ্রামের কয়েক জন বাসিন্দা পাড়ার একটি দোকানে বসে চা খাচ্ছিলেন। অভিযোগ, সেই সময় আচমকা জাকির গায়েন নামে এলাকার এক তৃণমূল নেতা ও তাঁর দলবল তাঁদের উপর চড়াও হয়। কেন সেখানে বসে তাঁরা চা খাচ্ছেন বলে হুমকিও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এর পর কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই এক দল দুষ্কৃতী তাঁদের উপর এলোপাথাড়ি গুলি চালাতে শুরু করে। সেখানেই গুলি লাগে ছ’জনের। আহতদের মধ্যে তিন জনকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। বাকি তিন জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় এনআরএসে নিয়ে আসা হয়।