রসগোল্লা বাংলারই, হেরে গেল ওড়িশা

রসগোল্লা বাংলারই, হেরে গেল ওড়িশা

রসগোল্লা দিয়ে মিষ্টিমুখ হয়ে যাক। দীর্ঘ লড়াইয়ের পর ওড়িশাকে হারিয়ে রসগোল্লার জিআই রেজিস্ট্রেশন আদায় করে নিল আমাদের রাজ্য পশ্চিমবঙ্গ। জিওগ্রাফিক্যাল ইন্ডিকেটর বা জিআই জানিয়ে দিল রসগোল্লা পশ্চিমবঙ্গের নিজস্ব সৃষ্টি, তা কোনও ভাবেই ওড়িশার নয়।
বিষয়টি হলো, রসগোল্লা কার সৃষ্টি, এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে লড়াই চলছিল পশ্চিমবঙ্গ আর ওড়িশার মধ্যে। পশ্চিমবঙ্গের নিজস্ব পাঁচ উৎপাদনের ' জিআই ' ট্যাগ পেতে আবেদন জানিয়েছিল রাজ্য সরকার৷ প্রথম চারটি অর্থাৎ সীতাভোগ-মিহিদানা, তুলাইপাঞ্জি ও গোবিন্দভোগ চাল নিয়ে সমস্যা খুব একটা কখনওই ছিল না৷ গোল বেধেছিল পাঁচ নম্বর অর্থাৎ রসগোল্লাকে নিয়ে৷
রসগোল্লা তাদের নিজস্ব বলে দাবি করে ওড়িশা। তাদের দাবি ছিল, পুরীর মন্দিরে রসগোল্লা মিষ্টিই নাকি জগন্নাথদেবকে ভোগ দেওয়া হত। এই যুক্তিতে দাবি উঠেছিল রসগোল্লা নাকি তাদেরই সৃষ্টি। রসগোল্লা দিবস পালনও শুরু করে ওড়িশা। যদিও সেই দাবি উড়িয়ে দেয় পশ্চিমবঙ্গ। রাজ্যের দাবি ছিল, রসগোল্লা একেবারেই পশ্চিমবঙ্গের সৃষ্টি। জগন্নাথকে যে মিষ্টি ভোগ দেওয়া হয় তার সঙ্গে রসগোল্লার কোনও সম্পর্ক নেই।
শেষ পর্যন্ত জিআই কর্তৃপক্ষের কাছে দু'রাজ্যই নিজস্ব দাবির সপক্ষে যুক্তি পেশ করে। অবশেষে জয় পশ্চিমবঙ্গের। জিতলেন নবীন ময়রারাই।