সিঙ্গল বেঞ্চেই থাকবে পঞ্চায়েত মামলা, প্রয়োজন হলে প্রতিদিন শুনানির নির্দেশ

সিঙ্গল বেঞ্চেই থাকবে পঞ্চায়েত মামলা, প্রয়োজন হলে প্রতিদিন শুনানির নির্দেশ

আজ হাইকোর্টের রায়ের দিকে তাকিয়ে ছিল গোটা বাংলা৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনের মামলা নিয়ে কি রায় দেবে কোর্ট সেটাই জানার ছিল৷ শুনানি হলো কিন্তু কাটল না পঞ্চায়েত মামলার জট৷ আরও অনিশ্চিত পঞ্চায়েত ভোটের ভাগ্য৷ কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ আজ সাফ জানিয়ে দেয়, এই মুহূর্তে মামলা সিঙ্গল বেঞ্চে চলছে৷ ফলে, সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডিভিশন বেঞ্চ এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করবে না৷ ফলে পঞ্চায়েতের ভাগ্য নির্ধারিত হবে সিঙ্গল বেঞ্চেই৷ প্রয়োজনে প্রতিদিন শুনানি করে মামলার দ্রুত নিষ্পত্তির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷  
আজ ছিল পঞ্চায়েত মামলার শুনানি৷ শুনানিতে রাজ্যের তরফে নির্বাচন প্রক্রিয়া এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার উপর বাড়তি গুরুত্ব দেওয়া হয়৷ রাজ্যের তরফে আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় সংবিধানের ২৪৩-ও ধারা তুলে বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার ও অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চে সওয়াল করতে থাকেন৷ বিজেপি যে মামলা করেছিল, তাতে ত্রুটি রয়েছে বলেও এদিন অভিযোগ তোলেন কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আদালতের কাছে তথ্য গোপন করে বিজেপি একই ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টে মামলা দায়ের করে হাইকোর্টের সঙ্গে প্রতারণা করেছে বলেও অভিযোগ তোলেন তিনি৷ রাজ্যের তরফে অভিযোগ তোলা হয়, সিঙ্গল বেঞ্চের গত সপ্তাহের রায় পক্ষপাতদুষ্ট৷ সিঙ্গল বেঞ্চে ফের মামলা নিয়ে গেলে কীভাবে সুবিচার পাবে রাজ্য? প্রশ্ন তোলেন কল্যাণবাবু৷

এদিন পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে বিরোধীদের অভিসন্ধি রয়েছে বলেও আদালতে আভিযোগ তোলা হয়৷ নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার পর বিরোধীদের মামলা করে নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় বাধা সৃষ্টি করছে বলেও অভিযোগ তোলেন রাজ্যের আইনজীবী৷ দীর্ঘ সময় ধরে চলে মামলার শুনানি৷

সব পক্ষের সওয়াল-জবাব শোনার পর ডিভিশন বেঞ্চ থেকে মামলা সিঙ্গল বেঞ্চে পাঠানোর পরামর্শ দেয় আদালত৷ পরে ডিভিশন বেঞ্চের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, যেহেতু মামলাটি বিচারপতি সুব্রত তালুকদারের সিঙ্গল বেঞ্চে চলছে ফলে, মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডিভিশন বেঞ্চ ওই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না৷ সাধারণত, সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডিভিশন বেঞ্চ ওই মামলায় হতক্ষেপ করে না৷

এদিন সকালে হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে মামলার শুনানি শেষের পর দুপুরে সিঙ্গল বেঞ্চে মামলার শুনানি হওয়ার কথা ছিল৷ আদালত সূত্রে খবর, পঞ্চায়েত ভোট নিয়ে ১৪টি শ্রমিক ইউনিয়নের মামলা ও বিজেপির দায়ের করা মামলা সিঙ্গল বেঞ্চে ওঠার কথা থাকলেও তা আজ স্থগিত রাখে আদালত৷ আগামিকাল ফের মামলার শুনানি৷

এদিন সকালে সিঙ্গল বেঞ্চে মামলার শুনানির পর ডিভিশন বেঞ্চ রায় ঘোষণা করবে বলে জানানো হয়৷ কিন্তু, দুপুরে সিঙ্গল বেঞ্চে মামলা না ওঠার কারণে ফের নতুন করে বিভ্রান্তি তৈরি হয়৷ ‘সিঙ্গল বেঞ্চে কিছু না পাওয়া গেলে’ তখন ডিভিশন বেঞ্চে যাওয়ার পরামর্শ দেয় বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার ও বিচারপতি অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ৷ আজ, রায়দান পর্বে সাফ জানিয়ে দেওয়া হল, ডিভিশন বেঞ্চ নয়, মামলার নিষ্পত্তি হবে সিঙ্গল বেঞ্চেই৷

গত ১২ এপ্রিল নির্বাচন প্রক্রিয়ার উপর স্থগিতাদেশ জারি করে কলকাতা হাইকোর্ট সিঙ্গল বেঞ্চ৷ একইসঙ্গে মনোনয়ন পর্ব-সহ ভোট প্রক্রিয়া সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য কমিশনের কাছে জানতে চায় ডিভিশন বেঞ্চ৷ মনোনয়ন পর্বে অশান্তি ঠেকাতে কমিশন কী কী ভূমিকা নিয়েছে, তাও জানাতে চাওয়া হয় আদালতের তরফে৷ সবপক্ষের সওয়াল শুনে আজ, রায় ঘোষণার জন্য সাড়ে চারটে পর্যন্ত সময় চেয়ে নেয় আদালত৷ কিন্তু কবে এই মামলার নিষ্পত্তি হবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে৷