আজ থেকে শুরু হয়ে গেল গঙ্গাসাগর মেলা, চলবে ১৭ জানুয়ারী পর্যন্ত

আজ থেকে শুরু হয়ে গেল গঙ্গাসাগর মেলা, চলবে ১৭ জানুয়ারী পর্যন্ত

আজ বুধবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়ে গেল গঙ্গাসাগর মেলা। এদিন মেলা অফিসার জেলার অতিরিক্ত জেলাশাসক পতাকা উত্তোলন করে মেলার সূচনা করেন। জানা গিয়েছে, মেলা চলবে ১৭ জানুয়ারি পর্যন্ত। এবারের পুণ্যস্নান ১৫ জানুয়ারি ভোর থেকে সন্ধে পর্যন্ত। অনেকেই আবার ১৪ জানুয়ারি মকর সংক্রান্তির ভোরে পুণ্যস্নান সারবেন। এবার মকর সংক্রান্তিতে সর্বভারতীয় কোনও মেলা না থাকায় ২০ লক্ষের মতো পুণ্যার্থী মেলায় আসতে পারে বলে অনুমান জেলা প্রশাসনের। সেইমতো সমস্ত ব্যবস্থাও করেছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলা প্রশাসন। ইতিমধ্যে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা পুলিসকর্মীরা মেলায় ঢুকতে শুরু করেছেন। সুন্দরবন পুলিশ জেলার সুপার তথাগত বসু মেলায় রয়েছেন। বাকি পুলিশকর্মীরা বুধবারের মধ্যে পৌঁছে যাবেন। পুলিস, হোমগার্ড, সিভিক ভলান্টিয়ার মিলিয়ে ৭ হাজার কর্মী আগামী কয়েকদিন নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন। এছাড়া উপকূল রক্ষীবাহিনী ও নৌসেনাও মজুত থাকছে। থাকছে অত্যাধুনিক যান হোভারক্র‌্যাফট। থাকছেন প্রশিক্ষিত ডুবুরিরা।
আনুষ্ঠানিকভাবে মেলা শুরুর আগে থেকেই হাজার হাজার পুণ্যার্থী সাগরস্নান সেরে কপিলমুনির মন্দিরে পুজো দিয়ে বাড়িও ফিরছেন। এক সপ্তাহ ধরে প্রায় লক্ষাধিক পুণ্যার্থী এসেছেন বলে সুন্দরবন পুলিস জেলার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।
কপিলমুনির মন্দির চত্বর পুরোপুরি সেজে উঠেছে। ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে খোদ মুখ্যমন্ত্রী আসার ফলে পরিকাঠামোগত কাজ অনেক এগিয়ে গেছে। পুণ্যার্থীদের জন্য তৈরি সাগরমেলার মাঠ। তবে ঠান্ডার তীব্রতা ভাবাচ্ছে প্রশাসনকে। কারণ এই মুহূর্তে সাগরে রাতের দিকে পারদ ৯ ডিগ্রির নিচে নেমে যাচ্ছে। আগামী কয়েকদিন খুব বেশি হেরফের হবে না বলে হাওয়া অফিসের পূর্বাভাস। সেইকথা মাথায় রেখে পুণ্যার্থীদের জন্য অস্থায়ী যাত্রীশেড তৈরি হয়েছে।