ব্যাঙ্ককর্মীদের সাথে ছেলে বা মেয়ের বিয়ে দেবেন না, ফতোয়ার বিরোধিতায় ব্যাঙ্ক কর্মীসংগঠন

ব্যাঙ্ককর্মীদের সাথে ছেলে বা মেয়ের বিয়ে দেবেন না, ফতোয়ার বিরোধিতায় ব্যাঙ্ক কর্মীসংগঠন

ব্যাঙ্ককর্মীদের সাথে ছেলে বা মেয়ের বিয়ে দেবেন না কারণ ব্যাঙ্ককর্মীদের উপার্জনে হারামের (অবৈধ) টাকা রয়েছে। এমনটাই ফতোয়া জারি করেছে দারুল উলুম দেওবন্দ, যার তীব্র বিরোধিতা জানিয়েছে কলকাতার ব্যাঙ্ক কর্মচারীদের কর্মীসংগঠন। 
এই ফতোয়ার প্রতিক্রিয়ায় ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়ার সহ-সভাপতি আবদুল সইদ খান জানান, ' যারা এই ধরনের ফতোয়া দেয় তারা বাস্তবতা থেকে অনেক দূরে থাকে। আসলে শিক্ষার অভাবটাই এখানে সব থেকে বড় সমস্যা। যারফলে এই ধরনের ফতোয়ার ভার বইতে হয় দরিদ্র মুসলিমদের। যারা ফতোয়া জারি করে তাদের উচিত শিক্ষার মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে মনোযোগী হওয়া। কোরান অনুগামীদের সুদ নেওয়ায় নিষেধ। তবে দারুল উলুম দেওবন্দের এ হেন ফতোয়া দুর্ভাগ্যজনক। ' এধরনের অবাস্তব ফতোয়া প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে চাননি অল ইন্ডিয়া ব্যাঙ্ক এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রাজেন নগর। তিনি বলেন, আমরা এই ধরনের বিবৃতিকে গুরুত্ব দিচ্ছি না। বরং কঠোরভাবে নিন্দা করছি।
উল্লেখ্য, সুদ-সহ ব্যাঙ্কিংয়ের অনুমতি দেয়নি ইসলাম। ইসলামিক ব্যাঙ্কিং আসার পর কেন্দ্র ও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফে বিষয়টি নিয়ে পর্যালোচনা করা হলেও তা বেশিদূর এগোয়নি।