মুকুলের ’ বিশ্ববাংলা ’ নিয়ে মন্তব্যের দায় নেবে না বিজেপি, ইঙ্গিত দিলীপ ঘোষের

মুকুলের ’ বিশ্ববাংলা ’ নিয়ে মন্তব্যের দায় নেবে না বিজেপি, ইঙ্গিত দিলীপ ঘোষের

বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর গতকাল শুক্রবারই মুকুল রায়ের প্রথম সভা ছিল। কিন্তু প্রথম দিনই বিতর্কে জড়ালেন তিনি। প্রথম প্রকাশ্য সমাবেশে ধর্মতলা থেকে তৃণমূল কংগ্রেসকে জোরাল আক্রমণ করেন মুকুল রায়। মমতা বন্দোপাধ্যায় ও তাঁর ভাইপ অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ তোলেন মুকুল। বলেন, 'বাংলায় বিশ্বকাপের স্পনসর বিশ্ববাংলা একটি কোম্পানি, তার মালিক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। ঠিকানা ৩০বি হরিশ চ্যাটার্জি স্ট্রিট। ' কিন্তু মুকুলের ওই বক্তব্যের দায় নিতে নারাজ বিজেপি। শনিবার নিউ জলপাইগুড়িতে তা স্পষ্ট করে দিলেন দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণের প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, ' বিশ্ববাংলা যে আসলে কী সেটা সরকার জানে, আর মুকুলদা জানেন। ওরা বহুদিন একসঙ্গে ঘর করেছেন। '
দিলীপ ঘোষের এই বক্তব্য তবে কি ইঙ্গিত দিচ্ছে যে দলের মধ্যেই মুকুলের গুরুত্ব খুব একটা নেই? নাকি এই নিয়ে দূরত্ব রাখতে চাইছে বিজেপি। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। ধর্মতলা থেকে মুকুল বিশ্ব বাংলা নিয়ে অভিযোগ তোলার খানিকক্ষণের মধ্যেই রাজ্য সরকারের তরফে স্বরাষ্ট্রসচিব অত্রি মিত্র সাংবাদিকদের জানিয়ে দেন, বিশ্ববাংলার লোগো এবং ব্র্যান্ড রাজ্য সরকারের নামে রেজিস্ট্রিকৃত। কোনও ব্যক্তির কপিরাইট নেই। অত্রি মিত্র বলেন, 'বিশ্ববাংলার লোগো এবং ব্র্যান্ড মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৈরি। উনি স্বেচ্ছায় এটা রাজ্য সরকারকে দিয়েছেন।'তিনি আরও জানান, গত সপ্তাহেই একটি সংস্থা এই লোগোর অপব্যবহার করায় রাজ্য সরকার আইনি পদক্ষেপ করেছে। মুকুলের অভিযোগের জবাব একাধারে সরকার ও দলের তরফে দেওয়া হয়।
শুক্রবার মুকুলের ভাষণকে অসত্য বলে পালটা তোপ দেগেছেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। মুকুলকে 'চাটনিবাবু'বলে পার্থর কটাক্ষ, 'এমন গদ্দার আগে দেখেনি। এতদিন দলে থেকে চৌর্যবৃত্তি করে গিয়েছেন। এখন বাইরে গিয়ে বন্দে মাতরমের বদলে জয় শ্রীরাম বলছেন। মানুষকে বিভ্রান্ত করছেন। এভাবে অসত্য ভাষণ দিলে মানুষ আস্তাকুঁড়ে ছুড়ে ফেলে দেবে।' যাঁকে টার্গেট করে শুক্রবার একের পর এক অভিযোগ তুলেছেন মুকুল, সেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এই বক্তব্যের বিরুদ্ধে আইনি নোটিশ পাঠাবেন। আর এবার মুকুলের বিশ্ব বাংলা নিয়ে মুকুলের বক্তব্যের দায় ঝেড়ে ফেল বিজেপিও।