বেআইনিভাবে কোটি কোটি টাকা তোলার অভিযোগ, পৈলান গ্রুপের কর্তার বাড়িতে সিবিআই তল্লাশি

বেআইনিভাবে কোটি কোটি টাকা তোলার অভিযোগ, পৈলান গ্রুপের কর্তার বাড়িতে সিবিআই তল্লাশি

পৈলান গ্রুপের কর্তার বাড়িতে সিবিআই তল্লাশি। চিটফান্ড কাণ্ডে নাম জড়িয়েছে পৈলান গ্রুপের। বেআইনিভাবে হাজার কোটি টাকা তোলার অভিযোগ রয়েছে। তাই এই অভিযোগ পেয়েই তদন্তে নেমেছেন সিবিআইয়ের আধিকারিকরা। এই মুহূর্তে পৈলানের কর্ণধার অপূর্ব সাহার বাড়িতে ম্যারাথন তল্লাশি শুরু করেছেন সিবিআইয়ের গোয়েন্দারা। বালিগঞ্জ পার্কের আবাসনে পৌঁছে গিয়েছেন ছ’জনের একটি দল। চলছে তল্লাশি। 

বেশ কিছু দিন আগেই সিবিআইয়ের কাছে পৈলান গ্রুপের বিরুদ্ধে অভিযোগ জমা পড়ে। সেবি-র তরফ থেকেও অভিযোগ জানানো হয় যে, সংস্থার বিভিন্ন অফিস মারফত কোটি কোটি টাকা আসছে। বিভিন্ন স্কিমের লোভ দেখিয়ে জেলার বাসিন্দাদের কাছ থেকে সংস্থার কর্মীরা টাকা সংগ্রহ করছেন বলে খবর আসে। 

তারপরই তল্লাশির সিন্ধান্ত নেন আধিকারিকরা। বৃহস্পতিবার সকালে কলকাতার বালিগঞ্জ, দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর বাঁকুড়া-সহ পাঁচটি জায়গায় শুরু হয়েছে অভিযান। এদিন একেবারে ভোর থাকতেই সল্টলেকের সিজিও কমপ্লেক্সে বৈঠকে বসেন সিবিআইয়ের কর্তাব্যক্তিরা। তারপর ৩০ জনের একটি দল পাঁচ ভাগে বিভক্ত হয়ে উল্লেখিত জায়গাগুলিতে ছড়িয়ে পড়েন। শুরু হয় ম্যারাথন তল্লাশি। 

উল্লেখ্য, ব্যবসায়ীদের থেকে তোলা আদায়ের অভিযোগে কিছুদিন আগেই ইডির নজরদারিতে এসেছেন সহকারী পিএফ কমিশনার রমেশচন্দ্র সিং। এরপরেই লাগাতার তল্লাশিতে নেমে চারুমার্কেট, বেহালা, সোনারপুর, পার্কস্ট্রিট-সহ বিভিন্ন জায়গা থেকে প্রচুর গুরুত্বপূর্ণ নথি উদ্ধার করেছেন ইডির আধিকারিকরা।