শিশু চুরি কান্ডে সিআইডির জেরার মুখে কৈলাস বিজয়বর্গীয়

শিশু চুরি কান্ডে সিআইডির জেরার মুখে কৈলাস বিজয়বর্গীয়

রাজ্যে বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় সিআইডি-র জেরার মুখে। তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, জলপাইগুড়ি হোমে শিশু চুরির ঘটনায় যুক্ত তিনি। রাজ্যের সিআইডির প্রতিনিধিদল রবিবার ইন্দোরে গিয়ে পৌঁছয়। ইন্দোর হাইকোর্টের নির্দেশে ইন্দোর পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে সিআইডির প্রতিনিধিরা। তাঁরাই জেরার ব্যবস্থা করে দেয়। তবে দফায় দফায় জেরা করে কি তথ্য হাতে পেয়েছে সিআইডি তা প্রকাশ্যে আনা হয়নি। 

সিআইডি সূত্রে খবর, জেরায় কৈলাস দাবি করেছেন তিনি জুহিকে চেনেন না। হোমের লাইসেন্স পাইয়ে দেওয়ার জন্য তিনি কাউকে সুপারিশ করেননি। এমনকী পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজনৈতিক প্রতিহিংসা মেটাতে তাঁকে শিশু চুরির মামলায় ফাঁসাচ্ছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের আগস্ট মাসে চন্দনা চক্রবর্তীর হোমে শিশুদের দত্তক প্রক্রিয়া নিয়ে বেনিয়ম নজরে আসে৷ বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের বিভিন্ন মহলে একাধিকবার অভিযোগ জানানো হয়৷ ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে বিষয়টির তদন্তভার সিআইডির হাতে দেওয়া হয়৷ তার পরেই ফেব্রুয়ারিতে চন্দনা গ্রেপ্তার হন৷ ঘটনায় বিজেপি নেত্রী জুহি চৌধুরী ছাড়াও আরও পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করা হয়৷ মে মাসে আদালতে পেশ করা সিআইডির চার্জশিটে রূপা গাঙ্গুলি ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়ের নাম ছিল৷ তারই প্রেক্ষিতে এই জেরা। ‌‌