আপেল দিয়ে ত্বকের যত্ন

আপেল দিয়ে ত্বকের যত্ন

আপেল স্বাস্থ্যের জন্য খুব উপকারী। ঠিক ততটাই উপকারী ত্বকের জন্যও। ত্বক শুষ্ক হোক কিংবা তৈলাক্ত, ত্বকের যত্নে নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন আপেল। এতে রয়েছে ভিটামিন এ, বি কমপ্লেক্স, সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টসহ বিভিন্ন উপাদান যা ত্বকের কালচে দাগ দূর করে ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। পাশাপাশি ব্রণও সাড়ায়।

তৈলাক্ত ত্বকের যত্নে যেভাবে ব্যবহার করবেন:
একটি পাত্রে ১ টেবিল চামচ আপেলের পেস্ট, ১ টেবিল চামচ লেবুর রস ও প্রয়োজন মতো দই মেশান। ভালো করে পেস্ট তৈরি করে মুখ ও গলার ত্বকে লাগান পাতলা আবরণে। ৩০ মিনিট পর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

শুষ্ক ত্বকের যত্নে যেভাবে ব্যবহার করবেন:
১ টেবিল চামচ আপেলের রসের সঙ্গে সমপরিমাণ গ্লিসারিন ও মধু মেশান। ভালো করে ব্লেন্ড করে মুখ ও গলার ত্বকে লাগান। ২০ মিনিট পর ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের রুক্ষতা দূর হবে।

স্ক্রাব হিসেবে:
১ টেবিল চামচ ওটমিল গুঁড়ার সঙ্গে ১ চা চামচ মধু ও ১ চা চামচ আপেলের রস মেশান। পরিমাণ মতো গোলাপজল দিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। পরিষ্কার ত্বকে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন কিছুক্ষণ। শুকিয়ে গেলে অল্প জল হাতে নিয়ে স্ক্রাব করে ধুয়ে ফেলুন। 

টোনার হিসেবে:
কয়েক ফোঁটা আপেল সিডার ভিনেগারে তুলা ভিজিয়ে ত্বকে চেপে নিন। চমৎকার প্রাকৃতিক টোনার হিসেবে কাজ করবে এটি।

ব্রণ সারাতে:
অর্ধেকটা আপেল কুচি করে ২ টেবিল চামচ মধু ও ৫ ফোঁটা টি ট্রি অয়েল মেশান। ব্রণ আক্রান্ত ত্বকে লাগান ফেসপ্যাকটি। ৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন একবার করে এটি ব্যবহার করলে ব্রণ দূর হবে।

ত্বক উজ্জ্বলতা বাড়াতে:
১ টেবিল চামচ ছেঁচা আপেল, ১ চা চামচ গাজরের রস, ১ চা চামচ কমলার রস ও ২টি ভিটামিন ই ক্যাপসুল ও কয়েক ফোঁটা গোলাপজল একসঙ্গে মেশান। ফেসওয়াশ দিয়ে ত্বক পরিষ্কার করে মিশ্রণটি লাগান। ২০ মিনিট পর হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন ত্বক।