সাইকেল না বাইসাইকেল তা একবার দেখে নিন

সাইকেল না বাইসাইকেল তা একবার দেখে নিন

পরিবেশ দূষনের মাত্রা বাড়তে থাকার কারণে এখন পেট্রোল-ডিজেলের থেকে পরিবেশ বান্ধব জিনিস ব্যবহারে বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে, ভারতে এখন এলপিজি গ্যাস ব্যবহার করা হলেও অনেক দেশে এখন ইলেকট্রিক গাড়ি ব্যবহারের প্রচলন শুরু হয়ে গেছে, যদিও একটি জনপ্রিয় গাড়ি সংস্থা কয়েক বছরের মধ্যে চারচাকা বৈদ্যুতিক গাড়ি আনার ব্যবস্থা করছে কিন্তু এবারে ইকো-ফ্রেন্ডলি ইলেকট্রিক বাইক আনল বোল্ট মোটরবাইকস, টোটোর মতোই চলবে ব্যাটারি ও চার্জের সাহায্যে,, বাইক হলেও সাইকেলের থেকে কিছু কম নয় কারণ এতে প্যাডেল রয়েছে, গিয়ার ছাড়াও প্যাডেলের মাধ্যমে সাইকেল চালানো যাবে, এই ইলেকট্রিক বাইসাইকেলটি প্রতি ঘণ্টায় প্রায় ৪০ মাইল বেগে চালানো সম্ভব বলে জানিয়েছে সংস্থা।চাইলে এতে সাধারণ সাইকেলের জন্য ব্যবহৃত ‘ইউ-লক’ও ব্যবহার করা যায়। বোল্ট-এ থাকছে না কোনও ‘কি-হোল’। চাবির পরিবর্তে এটি চালু করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে নিরাপদ ‘পাসওয়ার্ড’ ব্যবস্থা। স্মার্টফোন থেকে কোড লিখে বা সরাসরি বাইসাইকেলের ড্যাশবোর্ডেই গোপন কোডটি লিখে চালু করা যাবে বাইকটি। তবে যেহেতু বাইক কাম সাইকেল তাই স্পিড নিয়ে প্রশ্ন উঠলে সংস্থা জানিয়েছে এটি পাহাড়ি জায়গার তুলনায় সমতলে দশ মাইল বেশি স্পিডে চলবে, তবে দামেও কিন্তু বেশ চমক বোল্ট ইলেকট্রিক বাইকটি পেতে হলে ক্রেতাকে গুণতে হবে ৫৫০০ মার্কিন ডলার। শিপিং এবং অন্যান্য খরচ মিলিয়ে সেটা আরও কয়েকশো’ ডলার বৃদ্ধি পাবে। ব্যাটারি খুলে ঘরে নিয়ে রিচার্জের সুবিধা পাওয়ার জন্য ক্রেতাকে আরও ২৫০ ডলার খরচ করে অ্যাডাপ্টার কিনতে হবে। আপাতত বোল্ট শুধু অনলাইনেই পাওয়া যাচ্ছে।